fbpx
টাইমলাইনভারতরাজনীতি

মুসলিম মেয়েদের দেওয়া হবে বহু স্কলারশিপ, তিন তালাক বিলুপ্ত করার পর সরকারের বড়ো উদ্যোগ।

বিগত দিনে মোদী সরকার মুসলিম মহিলাদের তিন তালাক নামের কুপ্রথা থেকে স্বাধীন করেছে। তবে মুসলিম মেয়েদের জন্য সরকার আরো বেশিকিছু করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। আসলে মোদি সরকার মুসলিম মেয়েদের উন্নয়নের জন্য অনেকগুলি বড় বড় কাজ করছেন। যাতে তারা পড়াশোনা করে অন্য বর্গের মহিলাদের সমাজে নিজের জায়গা করতে পারে। এখন সমাজে মুসলিমদের মধ্যে মহিলা শিক্ষার উপর বেশি জোর নেই।

মোদি সরকার নিজের কার্যকালে আড়াই কোটি মুসলিম মেয়েদের পড়াশোনার জন্য ” প্রধানমন্ত্রী ছাত্রবৃত্তি ” দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। অর্থাৎ প্রতিবছর ৫০ লাখ মেয়েদের ভাগ্য ঠিক করার জন্য টাকা সোজাসুজি তাদের ব্যাংক একাউন্টে দেওয়া হবে। অল্পসংখ্যক কার্যমন্ত্রী মুক্তার আব্বাস নাকভি এর অনুযায়ী প্রতি পরিকল্পনায়  জন্য নূন্যতম ৩০% সিট নির্ধারিত করা হয়েছে। যদিও  লাভআর্থিয় এর অংশীদারি ৫০ শতাংশের থেকে বেশি। এর লাভ নেওয়ার পক্রিয়াকে সরল ও পারদর্শী বানানো হয়েছে।

ম্যাট্রিকের আগে স্কলারশিপ পরিকল্পনা: এই স্কলারশিপ সরকারি ও মান্যতা প্রাপ্ত  স্কুলে পড়ানো সেই অল্পসংখ্যক ছাত্ররা পাবে যাদের অভিভাবকের বার্ষিক আয় একলাখ টাকার অধিক নয় এবং সে গত ক্লাসে অন্তত ৫০% নাম্বার পেয়েছে।

ম্যাট্রিকের পর ছাত্রবৃত্তি পরিকল্পনা: এই স্কলারশিপ সরকারি বা মান্যতা প্রাপ্ত স্কুল/কলেজ সংস্থানে একাদশ শ্রেণী থেকে পিএচডী স্তর অব্দি পড়াশোনা করা অল্পসংখ্যক ছাত্ররা পাবে। মাতা-পিতা বা অভিভাবকের বার্ষিক আয় যদি ২ লাখ টাকার বেশি না হয়। আর ছাত্র যেন গত শ্রেণীতে অন্তত ৫০% নাম্বার পেয়ে থাকে।

মৌলানা আজাদ ফাউন্ডেশন ট্যালেন্টেড অল্পসংখ্যক ছাত্রদের জন্য বেগম হজরত মহল রাষ্ট্রীয় ছাত্রবৃত্তি দেয়। এর অনুযায়ী এখনো অব্দি সরকার ৫,৮৯,৮৩৮ জন ছাত্রকে টাকা দেওয়া হয়েছে।

 

৫১ হাজার টাকার বিয়ের উপহার: বেগম হজরত মহল রাষ্ট্রীয় ছাত্রবৃত্তি নিয়ে নেওয়া মুসলিম মেয়েদের বিয়ের জন্য ৫১০০০ টাকা দেওয়া হচ্ছে। এই পরিকল্পনার লাভের জন্য মেয়েরা গ্রাজুয়েশন ডিগ্রির পর পাত্র হবে। এই পরিকল্পনার উদ্দেশ্য হলো অল্পসংখ্যক বাচ্চাদের স্কুল ড্রপআউট কম করা এবং তাদের নিজের শিক্ষাকে পূরণ করার জন্য উৎসাহিত করা। তবে শুধু মুসলিম মেয়েদের জন্য নয়, ছেলেদের জন্যেও বহু সুযোগ সুবিধা দেওয়ার পরিকল্পনা করা হয়েছে। যার জন্য অনেকে এটাকে তোষণ নীতি বলে অভিহিত করেছেন।

Back to top button
Close