টাইমলাইনআন্তর্জাতিক

মায়ানমারে রাজনৈতিক অস্থিরতা, ১ বছরের জন্য দেশের নিয়ন্ত্রণ সেনার হাতে

ভারতের প্রতিবেশী দেশ মায়ানমার (Myanmar) থেকে চাঞ্চল্যকর খবর সামনে আসছে। আসলে মায়ানমারে ব্যাপক রাজনৈতিক অস্থিরতা উৎপন্ন হয়েছে। সেনা ও সরকারের মধ্যে স্থিতি রীতিমতো বিগড়ে গেছে। সেনা মায়ানমার দেশের সর্বোচ্চ নেত্রী আউং সান সু চিকে গ্রেফতার করেছেন বলেও জানা যাচ্ছে।

পুরো দেশ আপাতত সেনার নিয়ন্ত্রণে রয়েছে বলে একাংশ রিপোর্টে দাবি করা হচ্ছে। পুরো ১ বছরের জন্য দেশ সেনার নিয়ন্ত্রণে থাকতে পারে বলেও দাবি করা হয়েছে। মায়ানমার সেনা বাহিনীর অন্তর্গত মিয়াওয়াদি টিভি স্পষ্ট ভাষায় জানিয়েছেন যে পুরো ১ বছর দেশের নিয়ন্ত্রণ সেনা বাহিনীর হাতে থাকবে। মায়ানমারের বড়ো বড়ো শহরগুলিতে এখন সেনাবাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে এবং তারা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রেখেছে। অবশ্য মায়ানমারের সেনা শাসন হওয়া এই প্রথম নয়, এও আগে বহু বছর ধরে মায়ানমারের সেনার শাসন ছিল।

প্রসঙ্গত, নির্বাচন সঠিকভাবে হয়নি এই অভিযোগে সেনার ও মায়ানমার সরকারের সম্পর্ক বেশকিছু মাস ধরেই খারাপ চলছিল। নির্বাচনে কারসাজি হয়েছে, জালিয়াতি হয়েছে এই অভিযোগ বার বার মায়ানমার সরকারের বিরুদ্ধে উঠেছে। এখন সম্পর্কের অবনতি এমন জায়গায় পৌঁছেছে যে স্টেট কাউন্সিলর আউং সান সু চিকে সেনা হেফাজতে নিয়েছে।

জানিয়ে দি, স্টেট কাউন্সিলর এর পদ ভারতবর্ষের প্রধানমন্ত্রী পদের প্রায় সমান। মায়ানমারের প্রেসিডেন্ট উইন মিন্তও সেনার হেফাজতে রয়েছেন। সোমবার ভোরে তাদের বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।অবশ্য তাদের কোন স্থানে রাখা হয়েছে তা নিয়ে এখনও কোনো স্পষ্ট খবর পাওয়া যায়নি।

Related Articles

Back to top button