fbpx
টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গ

মহাপ্রভুর শহর নবদ্বীপ পেতে চলেছে হেরিটেজ তকমা

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ প্রাচ্যের অক্সফোর্ড হিসাবে খ্যাত, শ্রী চৈতন্যদেবের আবির্ভাব স্থল নবদ্বীপ শহর এবার পেতে চলেছে হেরিটেজের তকমা। প্রথম হেরিটেজ শহর হিসাবে নবদ্বীপ শহর পেতে চলেছে হেরিটেজের তকমা, জানাচ্ছে নবদ্বীপ পৌরসভা।

নবদ্বীপ কবে আনুষ্ঠানিক ভাবে নবদ্বীপ শহরকে হেরিটেজ শহর হিসেবে ঘোষণা করা হবে, তা এখনো জানা যায় নি। তবে  ইতিমধ্যে পুরসভাকে একটি চিঠি দিয়ে এ বিষয়ে জানানো হয়েছে। হেরিটেজ শহর হিসেবে প্রথম কী পরিকল্পনা, তা-ও জানতে চাওয়া হয়েছে। নবদ্বীপ পুরসভার চেয়ারম্যান বিমানকৃষ্ণ সাহা জানান, প্রাচীন এই শহরকে হেরিটেজ হিসেবে ঘোষণা করা হবে। এ জন্য কিছু কাজ করা হবে। শহরের নিকাশি ব্যবস্থাও ঢেলে সাজাতে বলা হয়েছে।

নবদ্বীপ সর্বাপেক্ষা প্রসিদ্ধ গৌরীয় বৈষ্ণব ধর্মের প্রতিষ্ঠাতা শ্রী চৈতন্য মহাপ্রভুর জন্মস্থান এবং নবদ্বীপ লীলার জন্য। বৈষ্ণবদের কাছে নবদ্বীপ এক পূন্যভূমি। শহর জুড়ে আছে নিমাইয়ের নবদ্বীপ লীলার নানা স্মৃতি সমৃদ্ধ স্থান ও বৈষ্ণব ধর্মের নানা ধর্মীয় কেন্দ্র।

নবদ্বীপ বাংলার এক প্রাচীন শহর। ঠিক কোন সময়ে এই জনপদ প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল জানা না গেলেও, ইতিহাস বলে সেন বংশীয় রাজাদের আমলে নবদ্বীপ বাংলার রাজধানী ছিল। ১১৫৯ থেকে ১২০৬ সাল পর্যন্ত বাংলার রাজধানী নবদ্বীপ শিক্ষা কেন্দ্র বিখ্যাত ছিল। বলা হয়, বহু প্রাচীন কাল থেকেই নবদ্বীপের পন্ডিতেরা সংস্কৃত শিক্ষা দান করতেন। এই শিক্ষা দানের উতকর্ষ এমনই ছিল যে নবদ্বীপকে তুলনা করা হয় অক্সফোর্ডের সাথে। চৈতন্য জীবনী গ্রন্থের সাক্ষ্যে জানা যায় নবদ্বীপে শ্রী চৈতন্য মহাপ্রভু যৌবনে শিক্ষকতা করতেন। তিনি তখন পরিচিত ছিলেন ‘ নিমাই পন্ডিত ‘ হিসাবে। এই নবদ্বীপের কোনো এক ঘাটেই হয়েছিল বিখ্যাত ‘দিগ্বীজয়ী বিমোচন’ যেখানে কেশব কাশ্মীরিকে সংস্কৃত আলোচনায় পরাজিত করেছিলেন মহাপ্রভু।

Back to top button
Close
Close