টাইমলাইনবিনোদন

সামান্থা নন, নিজের প্রথম প্রেম এই অভিনেত্রীকেই বিয়ের স্বপ্ন দেখে ছিলেন নাগা চৈতন‍্য

বাংলাহান্ট ডেস্ক: গত মাসেই বিয়ে ভেঙেছে সামান্থা রুথ প্রভু (samantha ruth prabhu) ও নাগা চৈতন‍্যর (naga chaitanya)। সোশ‍্যাল মিডিয়ায় যৌথ বিবৃতি দিয়ে সম্পর্ক ভাঙার কথা জানিয়েছিলেন দক্ষিণী ইন্ডাস্ট্রির এই জনপ্রিয় জুটি। বিচ্ছেদের পর অনেকদিন কেটে গেলেও এখনো মন খারাপ সামলে উঠতে পারেননি অনুরাগীরা। এর মধ‍্যে গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে, সামান্থা নন, অন‍্য এক অভিনেত্রীকে বিয়ে করার ইচ্ছা ছিল নাগা চৈতন‍্যর।

২০১৭ সালে সামান্থার সঙ্গে গাঁটছড়া বাঁধেন তিনি। শোনা যায়, তার আগে অভিনেত্রী শ্রুতি হাসানের (shruti hasan) সঙ্গে সম্পর্কে ছিলেন নাগা। ২০১৩ সালে সাক্ষাৎ হয় তাঁদের এবং প্রথম দেখাতেই প্রেম। একসঙ্গে ‘প্রেমম’ ছবিতে অভিনয়ও করেছিলেন তাঁরা। দুজনের সম্পর্ক বেশ গভীর ছিল বলেই খবর সংবাদ মাধ‍্যম সূত্রে। শ্রুতিকেই বিয়ে করতে চেয়েছিলেন নাগা চৈতন‍্য। কিন্তু সে সম্পর্ক আর টেকেনি।


এরপরেই সামান্থার সঙ্গে বিয়ের পিঁড়িতে বসেন নাগা চৈতন‍্য। কিন্তু চার বছরের বিবাহ বার্ষিকীর ঠিক আগেই ভেঙে যায় এই বিয়েও। গত ২ রা অক্টোবর যৌথ বিবৃতি দিয়ে বিবাহ বিচ্ছেদের কথা ঘোষনা করেন তেলুগু ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির এই জনপ্রিয় জুটি।

সামান্থা লেখেন, ‘অনেক ভাবনা চিন্তার পর চৈ এবং আমি ঠিক করেছি স্বামী এবং স্ত্রী হিসেবে আমাদের পথ আজ থেকে আলাদা হল। আমরা ভাগ‍্যবান যে প্রায় এক দশক ধরে আমাদের বন্ধুত্ব ছিল যেটা আমাদের সম্পর্কের শিকড়। এটা চিরদিন আমাদের মধ‍্যে একটা বিশেষ বন্ধন হয়ে থেকে যাবে।’

সবশেষে অনুরাগী ও শুভাকাঙ্খীদের কাছে কঠিন সময়ে প্রয়োজনীয় প্রাইভেসি অনুরোধ করেছেন তিনি। কয়েকটি সংবাদ মাধ‍্যমে প্রকাশিত খবর অনুযায়ী, বিচ্ছেদের পর খোরপোশ হিসেবে ২০০ কোটি টাকা খোরপোশ দেওয়ার প্রস্তাব দেওয়া হয়েছিল সামান্থাকে। কিন্তু তিনি সাফ জানান সম্পর্ক ভাঙার জন‍্য একটা পয়সাও তিনি নেবেন না।


বিবাহ বিচ্ছেদের পর বহু অভিযোগের তীরে বিদ্ধ হয়েছেন সামান্থা। নাগা চৈতন‍্যর সঙ্গে দাম্পত‍্য সম্পর্কে থাকাকালীন নাকি অন‍্য সম্পর্কে জড়িয়েছিলেন সামান্থা। এমনকি সন্তান চাই না বলে নাকি গর্ভপাত পর্যন্ত করিয়েছেন তিনি, বিবাহ বিচ্ছেদের পর এমনি সব গুঞ্জন ছড়াতে থাকে। এতদিন চুপ করে থাকার পর অবশেষে মুখ খোলেন অভিনেত্রী।

নিজের ইনস্টা স্টোরিতে সামান্থা লেখেন, ‘ওরা বলছে আমি পরকীয়া করেছি, কখনো সন্তান চাইনি। আমি নাকি সুযোগসন্ধানী, এমনকি গর্ভপাতও করিয়েছি। বিবাহ বিচ্ছেদ এমনিতেই একটি অত‍্যন্ত কষ্টকর পদ্ধতি। আমাকে ব‍্যক্তিগত আক্রমণগুলো থামার নাম নিচ্ছে না। কিন্তু আমি একটা প্রতিজ্ঞা করছি, কোনোকিছুই আমাকে ভাঙতে পারবে না।’

Related Articles

Back to top button