টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গ

বদলাতে চলেছে বর্ধমান স্টেশনের নাম, নতুন নাম রাখা হবে …

বদলাতে চলেছে বর্ধমান স্টেশনের নাম এমনটাই জানালেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী নিত্যানন্দ রাই। বর্ধমান স্টেশনের নতুন নাম রাখা হবে স্বাধীনতা সংগ্রামীর নামে। গতকাল শনিবার এই তথ্য সার্বজনীন করেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী। গতকাল নিত্যানন্দ রাই স্বাধীনতা সংগ্রামী বটুকেশ্বর দত্তের (Batukeshwar Dutt) পাটনার বাড়ি ঘুরে দেখার পর এই সিদ্ধান্ত নেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী।

 

১৯১০ সালে পশ্চিমবঙ্গের বর্ধমানের একটি প্রত্যন্ত গ্রামে জন্মেছিলেন বটুকেশ্বর দত্ত। দেশকে ইংরেজদের হাত থেকে স্বাধীন করতে নাম লিখিয়েছিলেন বিপ্লবী দলে। চন্দ্রশেখর আজাদের বিপ্লবী সংগঠন সোশ্যালিস্ট রিপাবলিকান অ্যাসোসিয়েশন-এ যোগ দেন তিনি। এরপর দিল্লীতে স্বাধীনতা সংগ্রামের আরেক নায়েক ভগৎ সিং এর সাথে যুক্ত হন তিনি।

বিপ্লবী কার্যকলাপ এবং বোমা বর্ষণের অভিযোগে ভগৎ সিং এর সাথে সাজা হয় বটুকেশ্বর দত্তের। পুলিশ কর্তাকে হত্যার অভিযোগে এরপর ফাঁসি হয় ভগৎ সিং এর। ভগৎ সিং এর সহযোগী বটুকেশ্বর দত্ত-কে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডে দণ্ডিত করে ব্রিটিশ সরকার। আন্দামান-নিকোবরের সেলুলার জেলে দ্বীপান্তরিত করা হয় বটুকেশ্বর দত্তকে। দেশ স্বাধীন হওয়ার পর আন্দামান-নিকোবরের সেলুলার জেল থেকে সসন্মানে মুক্তি পেয়ে বটুকেশ্বর দত্ত চলে যান পাটনায়, সেখানেই বিয়ে করেন তিনি।

গতকাল শনিবার স্বাধীনতা সংগ্রামী বটুকেশ্বর দত্তের মৃত্যুদিনে ওনাকে শ্রদ্ধা জানাতে জাক্কানপুরের বাড়িতে যান কেন্দ্রীয় মন্ত্রী নিত্যানন্দ রাই। সেখান থেকেই তিনি বটুকেশ্বর দত্তের জন্মস্থান বর্ধমান রেল স্টেশনের নাম পরিবর্তন করার ঘোষণা করেন। সেখানে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী স্বাধীনতা সংগ্রামী বটুকেশ্বর দত্তের মেয়ে ভারতী বাগচীর সঙ্গে। প্রসঙ্গত, তিনিই বটুকেশ্বরের বংশের শেষ প্রতিনিধি। ১৯৬৫ সালে দিল্লির এইমস সংলগ্ন একটি এলাকায় শেষনিঃশ্বাস ত্যাগ করেন বটুকেশ্বর। ওনার মৃত্যুর পর ওই এলাকার নামকরণ করা হয় স্বাধীনতা সংগ্রামী বটুকেশ্বর দত্তের নামে।

Back to top button