টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গ

অবশেষে গতকাল গভীর রাতে নিজ বাসভবনে পৌঁছালো গুলিবিদ্ধ বিজেপি নেতার মৃতদেহ,শোকহত এলাকাবাসী

বোলপুর,বীরভূম,১১ সেপ্টেম্বরঃ গুলিবিদ্ধ বিজেপি নেতা স্বরূপ গড়াইয়ের মৃতদেহ গতকাল গভীর রাতে পৌঁছালো তার বাসভবনে। সূত্রের খবর,আজ সকাল ৯ টার সময় কাটোয়ার উদ্দেশ্যে এই মৃতদেহ নিয়ে যাওয়া হবে শেষকৃত্যের জন্য। যদিও এই মৃতদেহকে কেন্দ্র করে বীরভূমে ক্রমশই বাড়ছিল রাজনৈতিক পারদ। দেখা গিয়েছিল,মৃতদেহ নেওয়াকে কেন্দ্র করে গভীর জল্পনা শুরু হয়েছিল। পাশাপাশি গতকাল রাতে পথ অবরোধে নামেন বিজেপির কার্যকর্তারা। নানুর কীর্ণাহার রোডে টায়ার জ্বালিয়ে বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন। এবং একই সঙ্গে বোলপুর সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালের সামনেও লাঠি হাতে বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন। এককথায় বলা যায়,নানুরে বিজেপি নেতার মৃতদেহ নিয়ে চরম উত্তেজনার সৃষ্টি হয় বীরভূমে।

বীরভূম জেলার বিজেপির সাধারণ সম্পাদক অষ্টম মণ্ডল আমাদের ফোনে জানান,“গতকাল রাত্রি ১১ টার পর আমাদের কর্মীর ডেডবডি পরিবারের হাতে তুলে দেন পুলিশ।” এরপরেই তিনি পুলিশের উদ্দেশ্যে বলেন,“রামকৃষ্ণপুর গ্রামের বাসিন্দারা তো উত্তপ্ত হয়ে আছে। তাই রাতের অন্ধকারে পুলিশ মৃতদেহ এনেছে। যাতে কেউ জানতে না পারে।ঝামেলা যাতে না হয়। এটাই পুলিশের মূল উদ্দেশ্য ছিল। সেইজন্য দেহ সকালে দেয়নি। তবে মৃতার পরিবার ও আমাদের দাবি,এই ঘটনায় অভিযুক্তদের অবিলম্বে গ্রেপ্তার করা হোক। ও বিচারে মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হোক।”

ঘটনার সূত্রপাত,গত ৭-ই সেপ্টেম্বর। বিজেপির দলীয় পতাকা লাগানোকে কেন্দ্র করে বিজেপি-তৃনমূল সংঘর্ষে রণক্ষেত্রের চেহারা নিয়েছিল নানুরের রামকৃষ্ণপুর গ্রাম। অভিযোগ,বিজেপি কর্মীকে লক্ষ্য করে গুলি করে তৃনমূল আশ্রিত দুস্কৃতিরা।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছিল,ওই গ্রামে বিজেপির নেতা-কর্মীরা দলীয় পতাকা লাগাতে যায়। সেই পতাকা লাগানো নিয়ে প্রথমে তৃনমূলের সাথে বিজেপির বচসা বাধে। তারপরেই শুরু হয় বোমাবাজি। অভিযোগ,বিজেপি কর্মী স্বরূপ গড়াইকে লক্ষ্য করে গুলি করে তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা। এই ঘটনায় তিনি গুরুতর জখম হলে। তড়িঘড়ি তাকে বোলপুর সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। পরে তার শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটলে বর্ধমান মেডিকেল কলজে ও হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়। সেখান থেকে তাকে কলকাতায় একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করানো হলে শারীরিক অবস্থা দ্রুত অবনতি ঘটতে থাকে। এরপরই তিনি মারা যান। সেইদিন রাতেই হাসপাতালে যান বিজেপি নেতারা। স্বরূপ গড়াই নানুরে বিজেপির যুব নেতা হিসাবে খুব জনপ্রিয় ছিল।

Related Articles

Back to top button