টাইমলাইনভারত

‘মিশন কর্মযোগী’, প্রকল্পের টার্গেট নিয়ে বড়ো বার্তা দিলেন নরেন্দ্র মোদী ও অমিত শাহ, তৈরি হবে ভবিষ্যতের লোকসেবক

Bangla Hunt Desk: মানবসম্পদ ব্যবস্থাপনার মৌলিক সংস্কার হিসাবে ‘মিশন কর্মযোগী’ (Mission Karmayogi) প্রকল্প কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভা কর্তৃক অনুমোদন পেল। পাশাপাশি দাবি করা হয়েছে এই প্রকল্প সরকার ও কর্মীদের ভবিষ্যত উন্নতিতে সাহায্য করবে।

প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য
প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী (Narendra modi) বলেছিলেন, ‘আজ মন্ত্রিসভায় সিভিল সার্ভিস ক্ষমতা বৃদ্ধির জন্য অনুমোদিত জাতীয় কর্মসূচির ফলে সরকারি মানবসম্পদ পরিচালন পদ্ধতিতে প্রভূত মৌলিক উন্নতি হবে। এর ফলে সরকারী কর্মীদের ক্ষমতা আরও বৃদ্ধি পাবে’।

বুধবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সভাপতিত্বে মন্ত্রিসভার বৈঠকে মিশন কর্মযোগী প্রকল্প অনুমোদিত হয়। এই প্রকল্পের মাধ্যমে সিভিল সার্ভেন্টদের কল্পনা এবং উদ্ভাবনীশক্তি, পেশাদার এবং প্রগতিশীল, সৃজনশীল সবদিক থেকে প্রস্তুত করে প্রশিক্ষণের মান বাড়ানো যাবে।

অনলাইন এই শিক্ষা প্রভূত সাফল্য দেবে
প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী জানিয়েছেন, ‘অনলাইন শিক্ষার এই প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে মানবসম্পদ পরিচালনা ও ধারাবাহিক শিক্ষার উন্নতি হবে। মিশন কর্মযোগীর মাধ্যমে সিভিল সার্ভেন্টদের ভবিষ্যতে কাজের প্রতি স্বচ্ছতা এবং কর্মীদের আরও সৃজনশীল করে তোলা যাবে’।

অভিভূত অমিত শাহও
এই নতুন প্রকল্পের বিষয়ে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ (Amit shah) বলেছেন, ‘এই প্রকল্প সরকারী কর্মীদের কর্মক্ষমতা উন্নত করতে এবং তাদেরকে নতুন ভারতের প্রত্যাশা উপলব্ধি করতে সাহায্য করবে। মোদী সরকার ভবিষ্যতে সিভিল সেবা গড়ে তুলতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ’। সিভিল সার্ভিসে কাঠামোগত পরিবর্তন আনতে মন্ত্রিসভার পক্ষ থেকে মিশন কর্মযোগীকে অনুমোদিত করার জন্য মোদী সরকারকে ধন্যবাদ জানানো হয়।

Back to top button