টাইমলাইনভারতরাজনীতি

যোগীর জন্মদিনে দেখা গেল না প্রধানমন্ত্রী মোদীর শুভেচ্ছা ভরা ট্যুইট! অবশেষে প্রকাশ্যে এল কারণ

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ শনিবার উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের (yogi adityanath) জন্মদিন থাকা সত্ত্বেও দেখা গেল না প্রধানমন্ত্রীর নরেন্দ্র মোদীর (narendra modi) শুভেচ্ছা ভরা ট্যুইট। যা নিয়ে আবারও জোর চর্চা শুরু হয়েছে রাজনৈতিক মহলে। শুধু তাই নয়, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের জন্মদিনেও কোন শুভেচ্ছা বার্তার ট্যুইট করতে দেখা যায়নি প্রধানমন্ত্রীকে। এই বিষয় নিয়ে চাপানউতোর শুরু হয়েছে রাজনৈতিক মহলে।

তবে এবিষয়ে একাংশের ধারণা, সম্প্রতি সময়ে ট্যুইটার কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কেন্দ্র সরকারের বিবাদের জেরেই, জন্মদিনের বার্তা লেখেন নি প্রধানমন্ত্রী। কিন্তু অন্যদিকে গতকাল পরিবেশ দিবস নিয়ে কিন্তু ট্যুইট করতে দেখা গেছে প্রধানমন্ত্রীকে। আবার অনেকের ধারণা, প্রধানমন্ত্রীর দপ্তরের প্রাক্তন আমলা অরবিন্দকুমার শর্মাকে যোগীর মন্ত্রীসভায় জায়গা করা নিয়ে চলতে থাকা ঠান্ডা লড়াইয়ের প্রকাশ করলেন প্রধানমন্ত্রী।

তবে চলতে থাকা নানা জল্পনার মধ্যে, যোগী দফতরের একাংশের বক্তব্য, স্যোশাল মিডিয়ায় শুভেচ্ছা না জানালেও, ফোন দুজনের মধ্যে কথা হয় এদিন এবং মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথকে জন্মদিনের শুভেচ্ছাও জানান প্রধানমন্ত্রী। অন্যদিকে প্রধানমন্ত্রীর দফতর থেকে জানা গিয়েছে, গত কয়েক সপ্তাহ ধরে কেরালা, রাজস্থান, হরিয়ানা ও গোয়ার মুখ্যমন্ত্রীর থাকা সত্ত্বেও, বর্তমান সময়ে করোনা আবহে প্রধানমন্ত্রী কাউকেই জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানান নি।

তবে এপ্রসঙ্গে প্রশ্ন উঠেছে- তাহলে কি করোনা মহামারির আবহে প্রধানমন্ত্রী মোদী এবং মুখ্যমন্ত্রী যোগীকে নানাভাবে সমালোচনার কাঠগড়ায় দাঁড় করিয়ে বিরোধীরা। তার জেরেই কি প্রধানমন্ত্রীর এমন আচরণের বহিঃপ্রকাশ?

প্রসঙ্গত, গতবছর ৫ ই জুন মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের জন্মদিন উপলক্ষ্যে শুভেচ্ছা বার্তার ট্যুইট করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। লিখেছিলেন, ‘উত্তরপ্রদেশের প্রগতিশীল ও কর্মঠ মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথকে জন্মদিনের অনেক শুভেচ্ছা জানাই। তাঁর নেতৃত্বের জেরেই উন্নতির নতুন শিখরে পৌঁছেছে উত্তরপ্রদেশ’।

Related Articles

Back to top button