টাইমলাইনভারতআন্তর্জাতিক

নেপাল চেয়েছিল ভারতের অংশ হতে, কিন্তু মান্যতা দেননি নেহেরু- প্রণব মুখোপাধ্যায়ের বই থেকে বড় পর্দাফাঁস

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ স্বাধীনতার সময় নেপালের তৎকালীন রাজা ত্রিভুবন বীর বিক্রম শাহ নেপালকে ভারতের অংশ হিসাবে স্বীকৃতি দেওয়ার অনুরোধ করলেও, তাতে মান্যতা দেননি জওহর লাল নেহরু (Jawaharlal Nehru)। নিজের আত্মজীবনীতে এমনই চাঞ্চল্যকর দাবি করেছেন ভারতের প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায় (Pranab Mukherjee)।

পৃথকভাবে নেপাল আলাদা একটি দেশ হত না, যদি না সেদিন জওহর লাল নেহরু ভারতের থেকে নেপালকে পৃথক করতেন। সেইদিন যদি তিনি নেপালের রাজার প্রস্তাব মেনে নিতেন, তাহলে আজকের দিনে চীনের সঙ্গে বন্ধুত্ব করে নেপাল কখনই ভারতের বিরুদ্ধে আওয়াজ তুলতে পারত না। প্রয়াত প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায়ের আত্মজীবনী থেকে এমনকিছু চাঞ্চল্যকর তথ্য উঠে এসেছে।

প্রণব মুখোপাধ্যায়ের আত্মজীবনীর ১১ নম্বর চ্যাপ্টার থেকে জানা যায়, তিনি লিখে গেছেন- স্বাধীনতার সময় নেপালের তৎকালীন মহারাজা ত্রিভুবন বিক্রম শাহ, স্বাধীন ভারতের প্রথম প্রধানমন্ত্রী জওহরলাল নেহরুকে অনুরোধ করেছিলেন, নেপালকে ভারতের অংশ হিসাবে মান্যতা দিতে। কিন্তু তাঁর সেই প্রস্তাবে সাড়া দেননি জওহরলাল নেহরু। পৃথক একটি দেশ হিসাবে গঠিত হয়।

সেখানেই আবার তিনি লিখেছেন, তৎকালীন সময়ে ইন্দিরা গান্ধী দেশের প্রধানমন্ত্রী থাকলে, আর তাঁকে নেপালের পক্ষ থেকে যদি এই প্রস্তাব দেওয়া হত, তাহলে অবশ্যই তিনি তা গ্রহণ করতেন। তাহলে আজকের দিনেও নেপাল ভারতেরই একটি অংশ হিসাবে থাকত, ঠিক যেভাবে সিকিম রয়েছে।

ভারতের এই প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায়, ২০২০ সালে মহামারি করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে বেশকিছুদিন চিকিৎসারত অবস্থায় থাকার পর কোমায় চলে গিয়ে প্রায়ত হন। তাঁর মৃত্যুর পর এই আত্মজীবনী প্রকাশ নিয়ে বাকযুদ্ধ শুরু হয়ে গিয়েছিল তাঁর দুই পুত্র কন্যা শর্মিষ্ঠা মুখোপাধ্যায় এবং অভিজিৎ মুখোপাধ্যায়ের মধ্যে।

Back to top button