টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গ

অন্ধকারে জাপটে ধরে নিজের পিসিকেই ধর্ষণের চেষ্টা! ভাইপোর কাণ্ডে চাঞ্চল্য গোটা এলাকায়

বাংলা হান্ট ডেস্ক: বর্তমানে আমাদের রাজ্যে প্রায় প্রতিদিনই একের পর এক ধর্ষণের ঘটনা উঠে আসছে খবরের শিরোনামে। এমনকি কিছু কিছু ক্ষেত্রে এই ঘটনা প্রাণঘাতীও হয়ে উঠছে। এই আবহেই এবার আলিপুরদুয়ার থেকে উঠে এল এক চাঞ্চল্যকর ঘটনার প্রসঙ্গ। মূলত, বাড়িতে শৌচালয় না থাকায় খোলা জায়গায় শৌচকর্ম করতে যাওয়ার সময়েই এক মহিলাকে ধর্ষণ করতে উদ্যত হল তাঁরই এক ভাইপো।

এমতাবস্থায়, এই ঘটনার কথা প্রকাশ্যে আসতেই রীতিমত অবাক হয়েছেন সকলেই। জানা গিয়েছে যে, মূলত চা বাগানের আদিবাসী ওই মহিলার বাড়িতে শৌচালয় না থাকায় প্রতিদিন ভোর বেলায় চা বাগানে শৌচকর্মে যেতে হয় তাঁদের। এদিকে এই সুযোগেরই অপেক্ষায় ছিল তাঁর এক ভাইপো।

ইতিমধ্যেই অভিযোগ পাওয়া গিয়েছে যে, গত শনিবার সকালে শৌচকর্ম করতে যাওয়ার সময়েই তাঁকে ধর্ষণের চেষ্টা করে ওই যুবক। অবস্থা বেগতিক বুঝে সেই সময় রীতিমতো নিজের উপস্থিত বুদ্ধি খাটিয়ে ওই যুবকের হাতে কামড়ে দেন ওই মহিলা। তারপরেই কোনমতে সেখান থেকে পালিয়ে নিজেকে রক্ষা করেন তিনি।

ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে গত শনিবার রাতে ওই গৃহবধূ এবং তাঁর বাবা দু’জনে গিয়ে কালচিনি থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করে আসেন। এরপরই ওই অভিযুক্ত যুবককে গ্রেফতার করে পুলিশ। এমনকি, রবিবারই ওই যুবককে পুলিশ আলিপুরদুয়ারের বিশেষ আদালতে পাঠাবে।

এই প্রসঙ্গে ওই নির্যাতিতা মহিলা জানিয়েছেন যে, “এর আগেও বেশ কয়েকবার ও আমার সঙ্গে এমন করার চেষ্টা করেছে। এমনকি আমাকে রাস্তায় দেখলেই গালাগালি করত সে। সেদিন সকালে আমি যখন বাইরে বেরিয়েছিলাম, তখনই সে আমায় হঠাৎ জড়িয়ে ধরে মাটিতে ফেলে ধর্ষণের চেষ্টা করেছিল। তার হাত থেকে বাঁচতে আমি তখন চিৎকার করি এবং কয়েকজন বাচ্চা ছেলে সেই সময় চলে আসে ওইখানে। ঠিক তখনই ওর হাতে কামড় বসিয়ে আমি পালিয়ে আসি।”

জানা গিয়েছে যে, ওই গৃহবধূর স্বামী বর্তমানে ভিন রাজ্যে কর্মরত রয়েছেন। পাশাপাশি বছর আঠাশের ওই গৃহবধূর দুই সন্তানও রয়েছে। আপাতত বাপের বাড়িতেই সন্তানসহ থাকেন তিনি। আর সেইখানেই এই ভয়াবহ ঘটনার সাক্ষী হতে হয়েছে তাঁকে। এমনকি, এই ঘটনায় চাঞ্চল্যও ছড়িয়েছে এলাকায়।

Related Articles

Back to top button