টাইমলাইনবিনোদন

বলিউড আর তার নেপোটিজম! সুশান্তের মৃত‍্যুর পর নেটিজেনের ক্ষোভের মুখে করণ, আলিয়া

বাংলাহান্ট ডেস্ক: মাত্র ৩৪ বছর বয়সে চলে গেলেন সুশান্ত সিং রাজপুত (sushant singh rajput)। ফের এক নক্ষত্রপতন হল বলিউডে (bollywood)। এমন এক প্রতিভার অবস আনে শোকগ্রস্ত গোটা অভিনয় জগৎ। তাঁর মৃত‍্যুর পর কেটে গিয়েছে একটা গোটা দিন। কিন্তু তাঁর মৃত‍্যু নিয়ে চর্চা এখনও অব‍্যাহত রয়েছে। নানা মুনি নানা মত পেশ করছেন এই প্রসঙ্গে। অনেকেই বলছেন, অর্থ যশ সবকিছু থাকা সত্ত্বেও কেন এমন পথ বেছে নিলেন সুশান্ত।
সুশান্তের মৃত‍্যুর সঙ্গে সঙ্গে ফের মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে বলিউডের স্বজনপোষন বা নেপোটিজম (nepotism) বিতর্ক। বংশানুক্রমে সিংহাসনে বসার ব‍্যাপিরটা অভিনয় জগতেও যে ভরপুর পরিমানে রয়েছে তা জানেন অনেকেই। কেউ স্বীকার করেন আবার কেউ করেন না। কিন্তু এতদিন এই নিয়ে জলঘোলা হলেও সুশান্তের মৃত‍্যু যেন চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিয়েছে নেপোটিজমের ভয়াবহতা।

ভাইরাল হয়েছে সুশান্তের এমন একটি কমেন্ট যার জন‍্য অভিযোগের তীর ঘুরে গিয়েছে বলিউড ইন্ডাস্ট্রির দিকে। ভাইরাল হওয়া ওই কমেন্টে দেখা গিয়েছে, একজন অনুরাগী মন্তব‍্য করেছেন, ছবিতে সুশান্তের চরিত্রের ফের মৃত‍্যু দেখাবে তাই তিনি ছবি দেখবেন না। উত্তরে অভিনেতা লেখেন, ‘আরছ যদি তুমি ছবিটা না দেখ তাহলে ওরা আমাকে বলিউড থেকে ছুঁড়ে ফেলে দেবে। আমার কোনো গডফাদার নেই তাই আমি তোমাদের সবাইকে আমার গড ও ফাদার বানিয়েছে। যদি চাও আমি বলিউডে টিকে থাকি তাহলে অন্তত একবার ছবিটা দেখ।’

সুশান্তের এই পুরনো কমেন্ট ভাইরাল হতেই নতুন করে উসকে দিয়েছে বলিউডের নেপোটিজম বিতর্ক। তারকা হেয়ার স্টাইলিস্ট স্বপ্না ভাবনি এম এস ধোনি ছবিতে সুশান্তের হেয়ার স্টাইলিংয়ের দায়িত্বে ছিলেন। অভিনেতার মৃত‍্যুতে তিনি বলেন, এটা বলিউডের কাছে কোনো রহস‍্য ছিল না যে সুশান্ত অবসাদের মধ‍্যে দিয়ে যাচ্ছে। কিন্তু কেউ সাহায‍্যের হাত বাড়ায়নি। আজকের টুইটার প্রমাণ করে দিচ্ছে এখানে সবাই কতটা নীচ।

জানা গিয়েছে, যশ রাজ ফিল্মসের সঙ্গে সম্পর্কচ্ছেদ করেন সুশান্ত।’পানি’ ছবিতে কাজ করার জন‍্য যশ রাজ ফিল্মসের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ ছিলেন সুশান্ত। এর জন‍্য তিনি রাম লীলা, ফিতুরের মতো ছবির প্রস্তাব ফিরিয়ে দেন। কিন্তু শেষমেষ পানি ছবি থেকেই সরে আসে যশ রাজ ফিল্মস।
জানা যায়, বেফিকরে ছবিতেও প্রথমে সুশান্তেরই অভিনয় করার কথা ছিল। কিন্তু তাঁকে কিছু না জানিয়েই তাঁর বদলে নিয়ে নেওয়া হয় রণবীর সিংকে। এরপর সেই সংস্থার সঙ্গেও সম্পর্ক ত‍্যাগ করেন অভিনেতা। পানি ছবির পরিচালক শেখর কাপুরের একটি টুইট তুমুল ভাইরাল হয়েছে। টুইটে পরিচালক শোকপ্রকাশ করে লিখেছেন, ‘তোমার কষ্টের কথা আমি জানতাম। ওই লোকগুলোকে জানি যারা তোমায় এত বাজে ভাবে হতাশ করল, যাদের জন‍্য তুমি আমার কাঁধে মাথা রেখে কাঁদতে। গত ৬ মাসে তোমার পাশে থাকতে না পারার জন‍্য আমি আফশোস করছি। তোমার সঙ্গে যা ঘটেছে তা ওদের কর্মের ফল, তোমার নয়।’

সুশান্তের মৃত‍্যুর পর বহু তারকা তাঁর সঙ্গে নিজের ছবি শেয়ার করে শোকপ্রকাশ করেছেন। আর এই তারকাদের উদ্দেশ‍্যেই ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন অভিনেতা রজত বারমেচা। তাঁর বক্তব‍্য, মানসিক স্বাস্থ‍্যের কথা বলা বলি তারকাদের ‘ফ‍্যান্সি ট্রেন্ড’। টুইট করেছেন অভিনেতা তথা প্রযোজক নিখিল দ্বিবেদীও। তিনি লিখেছেন, ‘সূর্য ওঠার সময় তো সবাই প্রণাম করে। কিন্তু সূর্য অস্ত যাওয়ার সময় সেই সূর্যের থেকেই চোখ ফিরিয়ে নেয়। একে অপরের দুর্বলতার কথা বলে খিল্লি ওড়ায়। অভয় দেওল ও ইমরান খানের সঙ্গে কি আপনাদের সম্পর্ক আছে? যদি তাদের কেরিয়ার এখন উজ্জ্বল হত তাহলে সম্পর্ক থাকত।’


অপর দিকে অভিনেতার মৃত‍্যুর পরেই তোলপাড় শুরু হয়েছে সোশ‍্যাল মিডিয়ায়। শোকপ্রকাশ করেন প্রযোজক পরিচালক করণ জোহর। সুশান্তের মৃত‍্যুর জন‍্য তিনি নিজেকেই দায়ী করছেন বলে জানান তিনি। গত এক বছর অভিনেতার সঙ্গে সম্পর্ক রাখেননি তিনি। জানা যায়, ড্রাইভ ওয়েব সিরিজের ব‍্যর্থতার পরেই সুশান্তের সঙ্গে যোগাযোগ বন্ধ করে দেন করণ।


শোকপ্রকাশ করেছেন আলিয়া ভাট, করিনা কাপুরের মতো তারকারাও। এরপরেই আসরে নামেন টুইটার ব‍্যবহারকারীরা। আলিয়াকে একহাত নিয়ে অনেকে মন্তব‍্য করেন, ‘আপনিই তো করন জোহরের টক শোতে মন্তব‍্য করেছিলেন সুশান্তকে চেনেন না।’ নেটিজেনের ক্ষোভের শিকার হয়েছেন করিনা, সোনম কাপুরও।

https://youtu.be/DtlB6kiPlJw

ভাইরাল হয়েছে একটি পুরনো অ্যাওয়ার্ড শোয়ের ভিডিও যেখানে দেখা গিয়েছে, স্টেজের ওপর ডেকে সুশান্তকে বিড়ম্বনায় ফেলেছেন শাহরুখ খান ও শাহিদ কাপুর। কয়েকজন প্রথম সারির তারকাদের সঙ্গে স্টার কিডরাও পড়েছে নেটজনতার ক্ষোভের মুখে। তবে সুশান্তের মৃত‍্যু রহস‍্যের তদন্ত চলছে। তাঁর ওপর কর্মক্ষেত্রের কোনো চাপ ছিল কিনা সেই বিষয়েও তদন্ত চলছে।

Related Articles

Back to top button