fbpx
টাইমলাইনভারত

রোজগার চাওয়া নয়, রোজগার দেবে এমন ব্যক্তিত্ব তৈরি করবে ভারতের নতুন শিক্ষানীতিঃ প্রধানমন্ত্রী মোদী

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ ভারতে (India) শিক্ষাব্যবস্থার আমূল পরিবর্তন হতে চলেছে। মোদী সরকার এই নতুন শিক্ষা ব্যবস্থা সম্পর্কে সম্প্রতি অভিমত ব্যক্ত করেছেন। তারপর থেকেই শুরু হয়েছে নানান বিতর্ক। সমস্ত বিতর্কের সরাসরি জবাব দিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী (Narendra modi)।

নয়া শিক্ষা ব্যবস্থা নিয়ে জবাব দিলেন মোদীজি
শনিবার কলেজ পড়ুয়াদের ভার্চুয়াল সভা অর্থাৎ ‘স্মার্ট ইন্ডিয়া হ্যাকাথন ২০২০’ গ্র্যান্ড ফিনালের সূচনাপর্বকে বেছে নিলেন সেই উত্তর দেওয়ার জন্য। শুরুতেই তিনি বললেন, ‘সুলভ শিক্ষার প্রসারের প্রয়োজন দেশে, একথা বলতেন বাবাসাহেব অম্বেডকর। তাঁর সেই ইচ্ছাকে কাজে লাগিয়েই বিভিন্ন স্তরে ধারাবাহিক আলোচনার মধ্যে দিয়ে এই নয়া শিক্ষা ব্যবস্থার অনুমোদন করা হয়েছে’।

ইচ্ছে পূরণ ঘটবে ১৩০ কোটি দেশবাসীর
নতুন শিক্ষা ব্যবস্থাকে কাজে লাগিয়ে পরিকাঠামোর সংস্কারই হল দেশের মূল লক্ষ্য। নতুন এই শিক্ষা ব্যবস্থার মাধ্যমে পূর্বেকার সমস্ত খামতি পূরণ করতে হবে বলেও জানালেন প্রধানমন্ত্রী। নতুন শিক্ষা ব্যবস্থা সম্পর্কে ছাত্র ছাত্রীদের পাশাপাশি তাঁদের অভিভাবকদের মধ্যে আশঙ্কা তৈরি হলেও, তিনি জানিয়েছেন এই নীতির ফলে ইচ্ছে পূরণ ঘটবে ১৩০ কোটি দেশবাসীর।

প্রধানমন্ত্রীর লক্ষ্য
প্রধানমন্ত্রী আরও বলেছেন, ‘এই শিক্ষা ব্যবস্থায় পড়াশোনা বোঝা নয়, আনন্দের বিষয় হয়ে উঠবে।  ঘটবে ভাষার বিস্তার। বাড়বে কর্মসংস্থানও। কর্মী নিয়োগও হবে প্রচুর পরিমাণে। আগামী ২০৩৫ সালের মধ্যে অন্তত ৫০ শতাংশ পড়ুয়াদের উচ্চশিক্ষার সুযোগ দেওয়া হবে’।

ভারতে পড়ুয়াদের প্রাথমিক স্তর থেকে স্নাতক হওয়া পর্যন্ত মোট ১৫ বছরের পড়াশুনা করতে হয়। কিন্তু বিদেশে মোট ১৬ বছর হয় এই শিক্ষাব্যবস্থা। অনেকে এই নতুন শিক্ষাব্যবস্থাকে বিদেশী নীতির অনুকরণ বলেও মনে করছেন।

Back to top button
Close