টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গ

ঊর্ধ্বমুখী করোনা! ভোটের আবহে কড়া নির্দেশিকা জারি নবান্নের, দেখুন একনজরে

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ গোটা দেশে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ ভয়াল পরিস্থিতির সৃষ্টি করেছে। একেরপর এক রেকর্ড ভেঙে করোনার গ্রাফ ক্রমে ঊর্ধ্বমুখী (Corona Outbreak)। সেই তালিকা থেকে বাদ নেই ভোট উৎসবে মেতে থাকা বাংলাও। এরাজ্যেও করোনা দিনে দিনে উদ্বেগজনক পরিস্থিতি তৈরি করছে। ইতিমধ্যেই করোনা প্রবন রাজ্যগুলির সাথে বৈঠক করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী (Narendra Modi)। করোনা সংক্রমণে রাশ টানতে ইতিমধ্যেই জনসচেতনতার আর্জি জানিয়েছেন তিনি।

তবে ভোটের মরশুমে বাংলায় যেভাবে মারণ ভাইরাস করোনা জাঁকিয়ে বসছে, তাতে চিন্তায় বিশেষজ্ঞ মহল। চিকিৎসকরা অবশ্য করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধির একটা বড় কারণ হিসাবে রাজনৈতিক সভা-মিছিল গুলোকেই দায়ী করছে। তবে আমজনতাও এমন পরিস্থিতিতে গা-ছাড়া ভাব দেখাচ্ছে। যা থেকে ক্রমে বাংলার করোনা পরিস্থিতি জটিল হয়ে উঠছে। সেই মত এদিন একাধিক জেলার জেলা শাসকদের সঙ্গে বৈঠক করলেন রাজ্যের মুখ্যসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায় (Alapon Bandyopadhyay)। আর সেই বৈঠক থেকে ভোটের আবহে বাংলায় জারি হল এক গুচ্ছ নির্দেশিকা (New Guideline)।

West Bengal: Nabanna issues no guidelines for 'Bharat Bandh'

বাংলায় চার দফায় ১০ জেলায় ভোটগ্রহণ (WB Assembly Poll) পর্ব মিটে গেছে। এবার সেই সমস্ত জেলা গুলির করোনা সংক্রমণে লাগাম টানতে উদ্যোগী হল নবান্ন (Nabanna)। সেই মত এদিন জেলাশাসকদের সঙ্গে ভার্চুয়াল বৈঠক করেন মুখ্যসচিব। সেই বৈঠক থেকে যে একগুচ্ছ কড়া নির্দেশিকা দেওয়া হল সেগুলি জানুন একনজরে—

১) জনবহুল এলাকায় মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক
২) হ্যান্ড স্যানিতাইজার ব্যবহারে জোর দিতে হবে
৩) প্রয়োজনে বাজার গুলিতে ভিড় এড়ানোর বন্দোবস্ত
৪) প্রয়োজনে শহরে মাইক্রো কনটেনমেন্ট জোনের সংখ্যা বাড়ানো
৫) সর্বত্র সচেতনতা বৃদ্ধির জন্য প্রচারের নির্দেশ
৬) প্রয়োজনে বড় জমায়েত নিষিদ্ধ
৭) করোনা রোগীর চিকিৎসার জন্য হাসপাতালগুলির ২০ শতাংশ পরিকাঠামো বৃদ্ধির নির্দেশ
৮) কলকাতা পুরসভাকে ২৪ ঘণ্টা সতর্ক থাকার পরামর্শ
৯) পয়লা বৈশাখের অনুষ্ঠানে ভিড় কমানোর দিকে নজর
১০) আরটিপিসিআর টেস্ট বাড়ানোর নির্দেশ।

Back to top button