ক্রিকেটখেলাটাইমলাইনIPL

পাখির মত উড়ে ছক্কা বাঁচালেন, এমন ফিল্ডিং দেখে টুইট করে শুভেচ্ছা জানালেন শচীনও, ভিডিও ভাইরাল নেটদুনিয়ায়

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ বিশ্ব ক্রিকেটে শুধুমাত্র ফিল্ডিং এর জন্য পরিচিতি লাভ করেছিলেন দক্ষিণ আফ্রিকান তারকা জন্টি রোডস। তার ফিল্ডিং দেখে মুগ্ধ হয়ে গিয়েছিল গোটা বিশ্ব। সেই সময় শরীর ছুড়ে আউট করেছেন অনেক তাবড় তাবড় ব্যাটসম্যানদের। ফিল্ডিং কে তিনি একটি শিল্পের পর্যায়ে নিয়ে গিয়েছিলেন। 1992 বিশ্বকাপে ইনজামাম উল হককে করা সেই উইকেট ভাঙ্গা রান আউট এখনো পর্যন্ত চোখের সামনে জ্বলজ্বল করে ক্রিকেটপ্রেমীদের। এছাড়াও পাখি হয়ে উড়ে উড়ে শচীন টেন্ডুলকারের অনেক ক্যাচ ধরেছিলেন তিনি। তবে এখন তিনি ক্রিকেট থেকে অনেক দূরে, দীর্ঘদিন হয়ে গেল তিনি ক্রিকেট থেকে অবসর নিয়েছেন। তবে গতকাল পাঞ্জাব বনাম রাজস্থান ম্যাচে জন্টির স্মৃতি যেন ফিরে এল। সেই স্মৃতি ফিরিয়ে নিয়ে এলেন পাঞ্জাবের তারকা ব্যাটসম্যান নিকোলাস পুরান।

গতকাল দ্বিতীয় ইনিংসে রাজস্থান যখন ব্যাট করছিল সেই ইনিংসের 7.3 ওভারে পাঞ্জাবের বোলার মুর্গান অশ্বিনের একটি শর্ট বলে সপাটে মারেন সঞ্জু স্যামসন। একেবারে বাউন্ডারির বাইরে চলে গিয়েছিল সেই বল কিন্তু বাউন্ডারির বাইরে নিজের শরীর ছুড়ে দিয়ে সেই বল তালুবন্দী করে ফেলেন নিকোলাস পুরান। কিন্তু তিনি যেহেতু বাইরে চলে যাচ্ছিলেন তাই উপস্থিত বুদ্ধি কাজে বলটি বাউন্ডারির ভিতর ছুড়ে দিয়ে দলের জন্য তিন রান বাঁচান।

তারপর পুরণের এমন ফিল্ডিং দেখার পরে নিজের চেয়ার ছেড়ে বেরিয়ে এসে হাততালি মেরে পুরানকে সম্মান জানান পাঞ্জাবের ফিল্ডিং কোচ জন্টি রোডস। এছাড়াও পুরাণের এমন দুর্দান্ত ফিল্ডিং দেখে চুপ করে বসে থাকতে পারেননি কিংবদন্তি শচীন তেন্ডুলকারও। তিনিও পুরানের ফিল্ডিংকে সম্মান জানিয়ে টুইট করে লিখেছেন, “এমন রান বাঁচানো আমি কোনদিন দেখিনি।”

Back to top button