টাইমলাইনবিনোদন

নুসরতকে ডিভোর্সের নোটিস পাঠালেন নিখিল! পালটা বিষ্ফোরণ তৃণমূল সাংসদের

বাংলাহান্ট ডেস্ক: অবশেষে সম্পূর্ণ ভাবে আলাদা হয়ে যাচ্ছেন নুসরত জাহান (nusrat jahan) ও নিখিল জৈন (nikhil jain)। গত কয়েক মাস ধরে তো আলাদাই থাকছিলেন। সম্পর্ক যেটুকু বাকি ছিল তা আইনি। এবার স্ত্রীর সঙ্গে সেই সম্পর্ক টুকুও চুকিয়ে ফেলতে চাইছেন নিখিল। এমনি বিষ্ফোরক খবর জানা গিয়েছে সম্প্রতি।

আনন্দবাজার ডিজিটালের তরফে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদনে দাবি করা হয় নুসরতকে শেষমেষ বিবাহ বিচ্ছেদের (divorce) নোটিস পাঠিয়েছেন নিখিল। প্রতিবেদনে আরো বলা হয় এখনো নিখিলেরই ক্রেডিট কার্ড ব‍্যবহার করে চলেছেন নুসরত। তবে তাতে কোনোদিন বাধা দেননি নিখিল।


এমনকি যশ দাশগুপ্তর সঙ্গে রাজস্থান ট‍্যুর, মাচা শো সম্পর্কেও সরাসরি কোনো মন্তব‍্য করেননি নিখিল। কিন্তু এবার কিছুটা বাধ‍্য হয়েই বিবাহ বিচ্ছেদের নোটিস স্ত্রীকে পাঠিয়েছেন তিনি, প্রতিবেদনে দাবি করা হয় এমনটাই। নিখিল নাকি জানিয়েছেন, যা বলার সবটাই পরে বলবেন।

অপরদিকে এই প্রতিবেদন প্রকাশ হতেই ফুঁসে উঠেছেন নুসরত জাহান। এক প্রেস বিবৃতিতে তিনি সাফ জানিয়ে দিয়েছেন যে খবর প্রকাশিত হয়েছে তা সম্পূর্ণ ভুল। আগে সঠিক তথ‍্যানুসন্ধান করে তবেই খবর প্রকাশ করা উচিত। ভুয়ো খবরে বিশ্বাস করার থেকে সকলকে বিরত থাকতেও আবেদন করেন তিনি।

অপরদিকে যশ দাশগুপ্তর সঙ্গে নুসরতের সম্পর্কের গুঞ্জন তুঙ্গে উঠতেই বিজেপিতে যোগ দেন অভিনেতা। এমতাবস্থায় যখন যশ বিজেপিতে যোগদান করছিলেন তখন নিজের দলের হয়েই প্রচারে ব‍্যস্ত ছিলেন অভিনেত্রী।

এখনো যশের বিজেপিতে যোগদান নিয়ে সরাসরি কিছুই বলেননি নুসরত। তবে নির্বাচনের আগে হঠাৎ করেই টলিপাড়ায় রাজনীতিতে যোগদান ও দলবদলের হিড়িক নিয়ে পরোক্ষে মুখ খুলেছেন অভিনেত্রী সাংসদ। বসিরহাট কলেজের সভাপতি হিসাবে সেখানে যান নুসরত।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে নুসরত বলেন, তিনি টলিউড ইন্ডাস্ট্রির পাশাপাশি তৃণমূলেরও সাংসদ। অন‍্য কোনো পার্টির কথা তিনি বলতে পারেন না, শুধুমাত্র নিজের দলের কথাই বলতে পারেন। অভিনেত্রীর কথায়, “যারা যাচ্ছে যাক। আমরা নিজেদের কর্তব‍্য পালন করছি। যারা দিদিকে ভালোবাসে তারা দিদির পাশেই থাকবে।”

Back to top button