টাইমলাইনআন্তর্জাতিক

ভিখারির মতো অবস্থা পাকিস্তানের! টাকার অভাবে খাওয়াতে না পেরে সিংহ বেচছে লাহোর চিড়িয়াখানা

বাংলাহান্ট ডেস্ক : পাকিস্তানের উচ্চ মুদ্রাস্ফীতির হার এবং দুর্বল অর্থনৈতিক অবস্থা শুধু জনগণকেই নয়, পশুদেরও প্রভাবিত করছে। সূত্রের খবর অনুযায়ী , লাহোর চিড়িয়াখানা সিংহ এবং বাঘ সহ বহু প্রাণীকে ব্যক্তিগত সংস্থার কাছে নিলাম করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। চিড়িয়াখানা কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে যে,স্থান এবং অর্থ সাশ্রয় করার উদ্দেশ্যে এমন ভাবনা ভাবা হয়েছে।

লাহোর চিড়িয়াখানায় 29টি সিংহ রয়েছে এবং তাদের বয়স 2 থেকে 5 বছরের মধ্যে। লাহোর চিড়িয়াখানার ডেপুটি ডিরেক্টর তানভীর আহমেদ জানজুয়া জানিয়েছেন, 11 আগস্ট এদের মধ্যে 12টি নিলামে তোলা হবে।

আর এই সিদ্ধান্তের প্রতিবাদেই পাকিস্তানের পশু কর্মীরা নিলামের বিরুদ্ধে সরব হয়েছেন। তারা হয় সিংহদের অন্য চিড়িয়াখানায় স্থানান্তর করার বা স্ত্রী সিংহদের গর্ভনিরোধক দেওয়ার পরামর্শ দিয়েছে। অনিম্যাল অ্যাক্টিভিস্ট উজমা খান বলেন, “একবার চিড়িয়াখানা থেকে এই ধরনের নিলাম হলে, এটি এমন একটি ব্যবসায় পরিণত হবে যা বন্যপ্রাণী সংরক্ষণে বিরূপ প্রভাব ফেলবে।”

নিলাম সবার জন্য উন্মুক্ত থাকবে বলেই জানা গিয়েছে। মজার বিষয় হল, লাহোর চিড়িয়াখানার আধিকারিকরা সিংহের জন্য যে ন্যূনতম বিড মূল্য নির্ধারণ করেছেন ভারতে ছাগলের দাম তার চেয়ে বেশি হয়। লাহৌর চিড়িয়াখানার পশু চিকিৎসক মহম্মদ রিজওয়ান খান বলেছেন, ‘‘গত কয়েক বছর প্রজননের ফলে সাফারি পার্কের সিংহের সংখ্যা অনেকটাই বেড়ে গিয়েছে। তাই আমাদের এমন সিদ্ধান্ত নিতে হয়েছে।’’ উল্লেখযোগ্যভাবে, লাহোর চিড়িয়াখানার চিফ ভেটেরিনারি অফিসার মোহাম্মদ রিজওয়ান খান এক বিবৃতিতে বলেছেন যে কর্তৃপক্ষ গত বছরও সিংহ বিক্রি করার চেষ্টা করেছিল, কিন্তু প্রয়োজনীয় কাগজপত্রের অভাবে প্রক্রিয়াটি সম্পন্ন করা যায়নি।

Related Articles