টাইমলাইনবিনোদন

নুসরতের অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার গুঞ্জন টলিপাড়ায়, নিখিল জৈনের বক্তব‍্য, এ সন্তান তাঁর নয়!

বাংলাহান্ট ডেস্ক: জীবনের নতুন অধ‍্যায় শুরু করতে চলেছেন তৃণমূল সাংসদ তথা অভিনেত্রী নুসরত জাহান (nusrat jahan)। বা বলা ভাল, যশ দাশগুপ্তের (yash dasgupta) সঙ্গেই এই নতুন জীবনে পা বাড়াতে চলেছেন তিনি। সন্তানসম্ভবা নুসরত, শুক্রবার সকাল থেকেই এমন গুঞ্জনে মুখরিত টলিটাউন। তবে এই বিষয়ে এখনো মুখে তালাচাবি এঁটে রেখেছেন ‘যশরত’ জুটি।

জাতীয় সংবাদ মাধ‍্যম সূত্রে খবর, গত মাসেই নাকি এই সুখবর পেয়েছেন নুসরত ও যশ। তাঁদের দুজনের ঘনিষ্ঠ মহল থেকেই এমন খবর মিলেছে। এই প্রসঙ্গে নুসরতের স্বামী নিখিল জৈন (nikhil jain) জানান, এই বিষয়ে কিছুই জানেন না তিনি। বিগত কয়েক মাস ধরে নুসরতের সঙ্গে কোনো সম্পর্কই নেই তাঁর। কাজেই এই সন্তান তাঁর নয়, একথা স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন নিখিল জৈন। উল্লেখ‍্য, নুসরত ও নিখিল আলাদা থাকলেও দুজনের আইনি বিচ্ছেদ এখনো হয়নি। আগে নিখিল জানিয়ে ছিলেন নির্বাচনের জন‍্য আটকে রয়েছে আইনি কাজকর্ম।


গত বছর পুজোর পর থেকেই নুসরত ও নিখিলের সম্পর্কের গুঞ্জন শোনা যেতে থাকে। শুরুটা হয়েছিল সোশ‍্যাল মিডিয়ায় একে অপরের পোস্টে ইঙ্গিতপূর্ণ কমেন্ট দিয়ে। তারপরেই শোনা যায় পুজোর ছুটিতে একসঙ্গে রাজস্থান ঘুরতে গিয়েছেন নুসরত যশ। আজমের শরীফে একত্রে দুজনের ছবি ভাইরাল হয় সোশ‍্যাল মিডিয়ায়।

একসঙ্গে মাচা শো থেকে শুরু করে দক্ষিণেশ্বর মন্দিরেও একসঙ্গে ক‍্যামেরাবন্দি হন যশরত। সেই শুরু। তারপর থেকে আর লুকোচুরি করেননি দুজন। নুসরতের ছবি ‘ডিকশনারি’র শুটিংয়ে সবার সামনে দিয়েই একসঙ্গে ঢুকেছিলেন যশরত জুটি। যশ বিরোধী রাজনৈতিক দলে যোগ দিলেও তার ছাপ পড়েনি দুজনের সম্পর্কে।


প্রায়ই দুজনের পার্টি করা ও ঘুরতে যাওয়ার ছবি ভাইরাল হয় নেটপাড়ায়। এতদিন বিষয়টা সুকৌশলে এড়িয়ে গেলেও সম্প্রতি সম্পর্কটা একরকম স্বীকার করেই নিয়েছেন নুসরত। এক ইংরেজি সংবাদ মাধ‍্যমের সমীক্ষার প্রকাশিত ফলাফলে ‘মোস্ট ডিসায়ারেবল ওমেন ২০২০’তে তৃতীয় স্থানে রয়েছে নুসরতের নাম।

সেখানে ‘রিলেশনশিপ স্টেটাস’এ স্পষ্টতই লেখা রয়েছে ‘ডেটিং যশ দাশগুপ্ত’। আর্টিকেলটির স্ক্রিনশট নিজের ইনস্টা স্টোরিতে শেয়ার করেন নুসরত। আর এতেই নেটজনতার বক্তব‍্য, যশের সঙ্গে সম্পর্কের বিষয়টা তাহলে স্বীকারই করে নিলেন নুসরত। এবার দেখার বিষয়, এই গুঞ্জন সম্পর্কে কী বলেন যশরত জুটি।

Related Articles

Back to top button