টাইমলাইনভারত

অগ্রহায়ণ মাসে মেনে চলুন এই বিশেষ নিয়ম, শ্রীকৃষ্ণের কৃপাদৃষ্টি বর্তাবে আপনার উপর

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ ভগবান বিষ্ণুর অষ্টম অবতার শ্রীকৃষ্ণের (Krishna) পরম প্রিয় মাস হল অগ্রহায়ণ (Ogrohayon)। এই মাস জুড়ে কিছু নিয়মাবলী পালন করলেই আপনিও গোপীনাথের কৃপা লাভ করতে পারেন, এমনকি সংসারে সুখ সমৃদ্ধিও ঘটাতে পারেন। চলুন জেনে নেওয়া যাক কি সেই নিয়মাবলী।

পুরাণ মতে, মানবজাতির সকল প্রকার মনের ইচ্ছা পূরণের জন্য উপবাস করার পক্ষে এই মাসটি আদর্শ। বলা হয়, এই মাসে উপবাসকারী সকল ব্যাক্তির উপরেই কৃষ্ণের কৃপাদৃষ্টি থাকে। এই মাসে আমিষের বদলে নিরামিষ খাবার খাওয়ার পাশাপাশি প্রতিদিন সকালে উঠে ১ টা বা ২ টো তুলসী পাতা দেওয়া জলে স্নান করার চেষ্টা করুন। স্নান সেরে ইষ্ট দেবতাকে স্মরণ করে পুজোয় বসুন।

প্রতিদিন যদি নিরামিষ না খেতে পারেন, তবে শনি মঙ্গল বার নিরামিষ খাবার অবশ্যই গ্রহণ করুন। এইমাসে আপনি খাদ্য শস্য দান করলে পুণ্য অর্জন করতে পারেন। পাশাপাশি দুঃস্থকে আপনার সামর্থ মত বস্ত্র ও খাদ্য দান করার মাধ্যমে নিজের সমস্ত পাপ বিনষ্ট এবং মনের ইচ্ছা পূরণ দুয়েরই সুযোগ পেতে পারেন।

এইমাস জুড়ে নিজের বাড়ি ঘরে নোংরা জমতে দেবেন না। প্রতিদিন রাতে খাওয়ার পর ঘুমানোর পূর্বে এক বালতি জল নিজের বাড়ির প্রধান দরজার সামনে রেখে দিন এবং পরদিন সকালে ঘুম থেকে উঠে সেই জল দিয়ে বাড়ির উঠোন পরিস্কার করে নিন। সেইসঙ্গে নিজের রান্না ঘরের সমস্ত কৌটাকাটি এই মাসে পূর্ণ রাখার চেষ্টা করুন।

হিন্দু শাস্ত্র মতে, অগ্রহায়ণ মাস বিবাহের পক্ষে উপযুক্ত মাস। ধর্মপ্রাণ বাঙালি এই মাসটিকে দেবী ‘লক্ষ্মীর মাস’ বলেও মনে করেন। ফলত, এই মাসে আয়োজিত হয় নবান্ন উৎসব ও লক্ষ্মীপুজো। ভগবান কৃষ্ণ এই মাসেই গোপীদের সকলকে সকালে সূর্য প্রণাম ও নদীতে স্নান সেরে ইষ্ট দেবতার আরাধনার পরামর্শ দিয়েছিলেন।

Back to top button