টাইমলাইনআন্তর্জাতিক

সাঁতারের পরীক্ষা দিতে হবে অনলাইনে! বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞপ্তি দেখে হাসির রোল নেট দুনিয়ায়

বাংলাহান্ট ডেস্ক : গ্রাজুয়েশন শেষ করতে দিতে হবে সাঁতারের পরীক্ষা। চীনের সাংহাই বিশ্ববিদ্যালয়ে রয়েছে এমনই এক নিয়ম। তবে এ সাঁতার বাস্তবে না দিকে হবে অনলাইনে। ইতিমধ্যেই বিশ্ববিদ্যালয়টির ডিনের দেওয়া এমন এক নির্দেশনা নিয়ে ইন্টারনেটে হাসির রোল উঠেছে।

চিনের সাংহাই বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের অনলাইনে সাঁতার পরীক্ষা দেয়ার নির্দেশ দিয়েছে কর্তৃপক্ষ। ৫০ মিটার সাঁতার পরীক্ষা বাকি ছিল শিক্ষার্থীদের। কোভিড সংক্রমণের জেরে গোটা সাংহাই শহরে লকডাউন জারি হয়। বন্ধ হয়ে গিয়েছে স্কুল, কলেজ।

চিনের কয়েকটি বিশ্ববিদ্যালয়ে স্নাতক হতে গেলে সাঁতারের পরীক্ষা দেয়া জরুরি। সাংহাই বিশ্ববিদ্যালয়েও সেই নিয়ম রয়েছে। তাই যারা স্নাতক হতে চান, তাদের এই পরীক্ষা দেওয়া জরুরি। কিন্তু চূড়ান্ত পরীক্ষার আগেই বিশ্ববিদ্যালয় কোভিডের কারণে বন্ধ হয়ে যাওয়ায় সেই পরীক্ষা দিতে পারেননি শিক্ষার্থীরা। তাই এ বার অনলাইনেই পরীক্ষা দিতে বললেন বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

এই নির্দেশের পরই নেটমাধ্যমে কটাক্ষের শিকার হচ্ছেন সাংহাই বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। কেউ বলছেন, বাথটাবেই এই পরীক্ষা দিতে হবে। কেউ আবার এমন সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করেছেন। তবে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ জানিয়েছেন, প্র্যাকটিক্যাল পরীক্ষা নয়, অনলাইনে সাঁতার সম্পর্কে লিখিত পরীক্ষা দিতে হবে শিক্ষার্থীদের।

“Shanghai University swimming test changed to online assessment”-এই হ্যাশটাগে পোস্ট চিনের Weibo প্ল্যাটফর্মে ১২০ মিলিয়ন ভিউ হয়। এক Weibo ব্যবহারকারী লেখেন, এরকম একটা খ্যাতনামা বিশ্ববিদ্যালয়ের তরফে এই কাণ্ড ! খুবই হতাশাজনক ব্যাপার। পুলে ঝাঁপ মারার জায়গায় থিওরি টেস্ট ! কীভাবে সম্ভব ? অপর এক Weibo ব্যবহারকারী মন্তব্য করেন, ছাত্ররা কি নিজেদের বাথটাবে সাঁতার কাটবেন ?কেউ কেউ আবার মজা করে নিজেদের রুমে সাঁতার কাটার ভিডিও করে তা শেয়ার করেন !

Related Articles