fbpx
টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গভাইরাল

ত্রিশ টাকায় ভাগ্য বদল, রাতারাতি রিক্সাচালক থেকে হলেন লাখপতি

বাংলা হান্ট ডেস্ক : সৌভাগ্য বোধহয় একেই বলেই৷ মাত্র ত্রিশ টাকাতেই ভাগ্য বদল হলেও এক দরিদ্র রিকশাচালকের৷ ত্রিশ টাকার লটারির টিকিট কেটে আজ তিনি হলেন পঞ্চাশ লক্ষ টাকার মালিক৷ হ্যাঁ মনে হতেই পারে অনেক অনেক টাকার টিকিট কেটেও যখন এক টাকাও পাওয়া যায় না তখন এরা কী ভাবে পান? একটাই উত্তর লাখ তো ফেভার করে৷ তাই একদিন যার রিকশায় চড়ে মানুষ গন্তব্যস্থলে যেতে আজ সেই পূর্ব বর্ধমানের গুসকরার বাসিন্দা গৌর দাস কে একবার চোখের দেখা দেখতে ভিড় জমাচ্ছেন অনেকেই৷

গুসকরা পুরসভা এলাকার 13 নম্বর ওয়ার্ডের মুচিপাড়ার টালির ছাউনির একটি ছোট্ট বাড়িতে বাস গৌর দাসের, স্ত্রী তিন সন্তান ও বিধবা মাকে নিয়ে নিতান্তই দুঃখ কষ্টের মধ্য দিয়ে দিন কাটে৷ তিন সন্তান পড়াশোনা করছে তাই পড়াশোনার ব্যয়ভার গৌর দাসের পক্ষে একা চালানো সম্ভব হয় না৷ সংসারের দায়িত্ব কাঁধে তুলে নিতে তাঁর স্ত্রী ও বিধবা মা দিনমজুরির কাজে যান৷ তবে রবিবারের টিকিট কাটা তাঁদের জীবনের ভোল বদল করে দিল৷ গৌরবাবু জানিয়েছেন রবিবার তাঁদের রিকশাচালক ইউনিয়নের একটি পিকনিক ছিল কিন্তু প্রচণ্ড বৃষ্টি হওয়ায় সেই পিকনিক বাতিল হয়ে যায়৷

দুপুরে টিপ সেরে বাড়ি ফেরার সময় এক লটারি বিক্রেতা তাঁকে নেহাত জোর জবরদস্তি করে টিকিটটি হাতে গুঁজে দেন৷ সেদিন গৌরবাবু আয় করেছিলেন মাত্র সত্তর টাকা কিন্তু সেখান থেকে টিকিটের দাম দিতে হয় ত্রিশ টাকা৷ এর পর বিকেলে আগ্রহ বসত তাঁর টিকিটটি নিয়ে গিয়ে টিকিটের পুরস্কার বিজয়ীদের তালিকার সঙ্গে মিলিয়ে দেখেন আর তখনই হয় মিরাক্কেল৷ প্রথম পুরস্কার প্রাপকের নম্বরের পাশেই তাঁর নম্বরটা জ্বলজ্বল করছে৷

যদিও প্রথমে তিনি বিষয়টি কাউকে বলেননি পরেই টিকিট বিক্রেতার মাধ্যমে সকলেই গৌরবাবুর পঞ্চাশ লক্ষ টাকা পুরস্কারের কথা জেনে যায়৷ এই টাকা নিয়ে তিনি কী করবেন?সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে গৌরবাবু জানিয়েছেন তিনি তাঁর ছেলেমেয়েদের ভাল করে লেখাপড়া শেখাতে চান আর সংসার দাঁড় করাতে চান৷সত্যি একেই হয়তো বলে লটারি৷

Leave a Reply

Back to top button
Close
Close