পশ্চিমবঙ্গবিধানসভা নির্বাচন

ভোটে ভরাডুবির কারণ বের করতে গিয়ে অধীরের মুখে উঠে এল ধর্মীয় মেরুকরণের প্রসঙ্গ

বাংলা হান্ট ডেস্ক: বাংলা হান্ট ডেস্ক: মেরুকরণের রাজনীতি এবং প্রশান্ত কিশোরের ভোট কৌশল এবং মমতার জনমোহিনী নীতির কাছে হেরে গিয়েছে সংযুক্ত মোর্চা। রাজ্যের সপ্তদশ বিধানসভা নির্বাচনে বাম কংগ্রেস আইএসএফ সংযুক্ত মোর্চার ভরাডুবি কার্যত স্বীকার করে নিয়ে এক ভিডিও বার্তায় একথা জানালেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর রঞ্জন চৌধুরী।

অধীরের গড়েও কংগ্রেস নিজের অস্তিত্ব বাঁচিয়ে রাখতে পারেনি। প্রত্যাশিত ভাবেই মালদহ এবং মুর্শিদাবাদে তৃণমূল কংগ্রেস ভাল ফল করেছে। বিশেষ করে মুর্শিদাবাদে তৃণমূল কংগ্রেস ভাল ফল করেছে। মুর্শিদাবাদের ১১টি আসনের মধ্যে বেশিরভাগটাই জিতেছে তৃণমূল কংগ্রেস। বিজেপিও তেমন ভাল ফল করতে পারেনি।

মালদহ এবার উজার করে ভোট দিয়েছে তৃণমূল কংগ্রেসকে। একের পর এক আসন খুইয়েছে কংগ্রেস। মালদহ এবং মুর্শিদাবাদে তৃণমূলের এইবিপুর জয়ের নেপথ্যে রয়েছে ধর্মীয় মেরুকারণের রাজনীতি।এমনই দাবি করেছেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি। তিনি দাবি করেছেন,মালদহ এবং মুর্শিদাবাদে প্রচারে এসে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ধর্মীয় মেরুকরণ করেছেন হিন্দু-মুসলিম ভোট ভাগ করেছেন। সেকারণেই এই ফল হয়েছে মুর্শিদাবাদে।

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় মুসলিমদের বুঝিয়েছেন বাঁচতে হলে তৃণমূল কংগ্রেসই একমাত্র পথ। তাই মুসলিমরা বিজেপির হাত থেকে বাঁচতে মমতাকে ভোট দিয়েছেন। কংগ্রেসের সঙ্গে আইএসএফের জোট তাঁরা মেনে নিতে চায়নি। বাম-কংগ্রেসের অসাম্প্রদায়িক ইমেজ আঘাত পেয়েছে আইএসএফের সঙ্গে জোেট। সেকারণেই হিন্দুরা ভরসা রাখতে পারেননি বাম-কংগ্রেস জোেটর উপর।

 

 

Back to top button