টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গ

করোনা আতঙ্কের মধ্যেও রাতারাতি কোটিপতি হলেন এক ব্যক্তি , লটারি কেটে ভাগ্য খুলে গেল মুর্শিদাবাদের এক ব্যক্তির

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ একেই বলে ভাগ্যের জোর। করো‌না (corona) আতঙ্কে কেরল থেকে বাড়ি ফিরেছিলেন মুর্শিদাবাদ বেলডাঙার (Murshidabad Beldangar) বাসিন্দা পেশায় রাজমিস্ত্রী ইজাহারুল (Izaharul)। ফিরে নিজের ভাগ্য পরীক্ষা করতে লটারি কাটেন তিনি। আর তাতেই ভাগ্য ফেরে। আপাতত লটারির টাকায় কোটিপতি ইজহারুল।

পেশায় রাজমিস্ত্রী ইজাহারুলের ভিনরাজ্যে কাজ করে বছরের বেশিরভাগ সময় কাটে। অন্য রাজ্যে পেশার কারণে থাকা আর পাঁচজনের মতোই করোনা আতঙ্কে বাড়ি ফিরেছিলেন তিনি। তারপরেই হঠাৎ কোটিপতি!‌ অভাবেক সংসার। নুন আনতে পান্তা ফুরায়। দিন ২০ হল বাড়ি এসে তিনিও চিন্তায় পড়েছিলেন রোজগার নিয়ে। তাই ভাগ্য পরীক্ষা করতে পাড়ার অনেকের দেখাদেখি লটারির টিকিট কিনে ফেলেন তিনি।

বৃহস্পতিবার রাত ৮ টায় নাগাদ তিনি জানতে পারেন, কোটিপতি হওয়া ভাগ্যে লেখা আছে তাঁর। রাতারাতি কোটিপতি হওয়ায় ইজাহারুলের বাড়ি বেলডাঙা থানার মির্জাপুর গ্রামের শীতলপাড়ায় শোরগোল পড়ে যায়।

যুবকের পিতার নাম আনারুল সেখ। এই বিপুল অঙ্কের টাকা পেয়ে পরিবারে এখন খুশির হাওয়া। মা আঙ্গুরা বিবি বলেন, ‘‌খুবই অনটনের মধ্যে দিন কাটছিল। করোনা আতঙ্কের জেরে ছেলে বাড়ি ফিরে এসেছিল কেরল থেকে। লটারিতে টাকা পাওয়ায় কিছুটা হলেও সংসারে সুখের মুখ দেখতে পাওয়া যাবে। ইজারুল শেখ বলেন, ‘‌বাড়িতে বসে কিভাবে সংসার চলবে তাই ভাবছিলাম। লটারিতে এক কোটি টাকা পেয়ে যাব তা ভাবতে পারিনি। ওদিকে করানোর জন্য কাজ ছেড়ে চলে আসি। এবার হয়তো আর কাজে যেতে হবে না।

 

Back to top button