টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গরাজনীতি

দল থেকে সরে গেলে ওজন বোঝা যায়, ৭০ কেজি নাকি ৫ কেজি! অনুব্রতকে কটাক্ষ সিদ্দিকুল্লার

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ আবারও সংবাদের শিরোনামে তৃণমূল নেতা অনুব্রত মণ্ডল (Anubrata Mandal)। কিছুদিন আগেই তাঁর নাম করে হুমকির চিঠি পেয়েছিলেন এক রেশন ডিলার, কিন্তু এবার সরাসরি তাঁর শারীরিক ওজোন নিয়ে কটাক্ষ করলেন রাজ্যের গ্রন্থাগার ও জনশিক্ষা প্রসার মন্ত্রী সিদ্দিকুল্লা চৌধুরি (Siddiqullah Chowdhury)।

সিদ্দিকুল্লা চৌধুরি অভিযোগ করেছেন, আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনের আগাম প্রার্থী ঘোষণা করছেন অনুব্রত মণ্ডল। এখনও দিনক্ষণ স্থির হয়নি, তাঁর আগেই অনুব্রত মণ্ডল নাকি একের পর প্রার্থীর নাম ঘোষণা করে চলেছেন। এমনকি বলেছেন, দল থেকে সরে গেলে সদস্যদের ওজনও বোঝা যায়।

সিদ্দিকুল্লার অভিযোগ
সদাইপুর থানার যাত্রা গ্রামের মাদ্রাসায় জমিয়তে উলমায়ে হিন্দের একটি সভায় শুক্রবার যোগ দিয়েছিলেন সিদ্দিকুল্লা চৌধুরি। সেখানে গিয়ে তিনি বলেন, ‘এখানকার মানুষজন এখনও মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জীর উপর আস্থা রাখেন। দল যদি কেউ বিক্রি করতে চায়, উলটো পালটা কথা বলে, তা মেনে নেব না। পাল্টা আঘাত করতে হবে। চাবুক মারুন, ব্যক্তি দলের থেকে অনেক ছোট’।

তিনি আরও অভিযোগ করেন, ‘সিদ্দিকুল্লা চৌধুরি ঘাসপাতা খায়, একথা ভেবে ভুল করবেন না। দল থেকে সরে গেলেই সবার ওজোন বোঝা যায়, ৭০ কেজি নাকি ৫ কেজি! এখনও নির্বাচনের দিন স্থির হল না, তাঁর আগেই একের পর এক প্রার্থীর নাম ঘোষণা হচ্ছে। মমতা ব্যানার্জীর মন বড় বলে, সকলকেই দলে রেখেছেন। আউশগ্রাম, কেতুগ্রাম, মঙ্গলকোটে বীরভূমের নেতারা ক্যানসার তৈরি করে ছেড়েছেন। পচা আলু, ভালো আলুগুলোকে খারাপ করে দিচ্ছে। আমি এর প্রতিবাদ করছি’।

অভিযোগ উড়িয়ে দিলেন অনুব্রত মণ্ডল
নিজের বিরুদ্ধে ওঠা সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করে অনুব্রত মণ্ডল জানিয়েছেন, ‘আমি কোন প্রার্থীর নাম ঘোষণা করিনি। সব সভার ফুটেজ আছে আমার কাছে। উনি কি বললেন, তা জেনে আমার কোন লাভ নেই। কে কোথায় কি বলল, তাতে আমার কিছু যার আসে না’।

Back to top button