টাইমলাইনবিনোদন

মানসিক অবসাদে ভুগছিলেন পল্লবী! অভিনেত্রীর মৃত‍্যু ফেরালো সুশান্ত কাণ্ডের স্মৃতি

বাংলাহান্ট ডেস্ক: দু বছর আগে প্রয়াত হন বলিউড অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুত (Sushant Singh Rajput)। বান্দ্রার ফ্ল‍্যাট থেকে উদ্ধার হয়েছিল তাঁর ঝুলন্ত দেহ। সুশান্তের মৃত‍্যু আত্মহত‍্যা নাকি খুন তা জানতে দীর্ঘ তদন্ত চলে। জেলের ঘানি টেনেছিলেন সুশান্তের প্রেমিকা রিয়া চক্রবর্তীও। রবিবার অভিনেত্রী পল্লবী দের (Pallabi Dey) মৃত‍্যুতে যেন ফিরে এল সুশান্ত কাণ্ডের স্মৃতি।

রবিবার গড়ফার ফ্ল‍্যাট থেকে উদ্ধার হয় ছোটপর্দার জনপ্রিয় অভিনেত্রী পল্লবী দের ঝুলন্ত দেহ। ওই ফ্ল‍্যাটে প্রেমিক সাগ্নিক চক্রবর্তীর সঙ্গে লিভ ইন করতেন তিনি। সাগ্নিকই প্রথম পল্লবীকে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখে পুলিসে খবর দেন। গড়ফা থানায় জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে তাঁকে। ময়না তদন্তের প্রাথমিক রিপোর্ট আত্মহত‍্যাই দেখাচ্ছে।


জানা যাচ্ছে, গত দেড় বছর ধরে সম্পর্কে ছিলেন পল্লবী ও সাগ্নিক। এর আগে হাওড়ার রামরাজাতলায় থাকতেন পল্লবী। তারপর প্রেমিকের সঙ্গে গড়ফার ফ্ল‍্যাটে থাকা শুরু করেন। জানা যাচ্ছে, শনিবার এবং রবিবার প্রেমিকের সঙ্গে কথা কাটাকাটি হয়েছিল অভিনেত্রীর।

কিন্তু পুলিসের জেরায় সাগ্নিক জানান পল্লবী নাকি মানসিক অবসাদে ভুগছিলেন। যে সিরিয়ালটিতে কাজ করছিলেন সেটি খুব তাড়াতাড়িই শেষ হয়ে যাবে। এদিকে হাতে কাজ নেই। এমতাবস্থায় ইএমআই কীভাবে চোকাবেন তা নিয়েই নাকি চিন্তায় পড়েছিলেন অভিনেত্রী।

সাগ্নিক আরো দাবি করেছেন, পল্লবীর সঙ্গে নাকি শনিবার পাটুলি ঘুরতে গিয়েছিলেন তিনি। রাতে একই ঘরে ছিলেন। রবিবার সকালে তাঁর সিগারেট খেতে বেরোনোর সুযোগে ঘরের দরজা বন্ধ করে ওই কাণ্ড ঘটায় পল্লবী। সাগ্নিক কেয়ারটেকার ডেকে এনে যখন দরজা খোলেন ততক্ষণে সব শেষ।

যদিও অভিনেত্রীর ঘনিষ্ঠ বন্ধু অভিনেতা সায়ক চক্রবর্তী জানান, বেশ কিছুদিন ধরেই ঝগড়া চলছিল পল্লবী ও সাগ্নিকের মধ‍্যে। তিনি দুজনকেই পরামর্শ দিয়েছিলেন মিটমাট করে নিতে। মৃত অভিনেত্রীর বাবাও জানিয়েছেন, শনিবার মাকে ফোন করে ধোকার ডালনার রেসিপি জানতে চেয়েছিলেন মেয়ে। আত্মহত‍্যা করতেই পারেন না পল্লবী। মেয়েকে খুন করা হয়েছে বলে সন্দেহ করছেন অভিনেত্রীর বাবা।

Related Articles

Back to top button