টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গরাজনীতি

‘টাক ডুমাডুম টাক ডুমাডুম’ শব্দে ঢাক বাজালেন পার্থ, পুজোর ভোজে খুশি অর্পিতাও, সপ্তমীতে খোশ মেজাজে অপা

বাংলাহান্ট ডেস্ক : প্রতি বছর পুজো কাটে নাকতলা উদয়ন সংঘের মাঠেই। কিন্তু, এই বছর যে বিধি বাম। জেলেই থাকতে হয়েছে রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে (Partha Chatterjee)। জামিনের জন্য পার্থর করা আবেদন খারিজ করে দেয় আদালত। সংশোধনাগারে থাকাকালীন সময়ে পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে মনমরা অবস্থাতেই দেখা যেত। কিন্তু, পুজোর সময় একেবারে আলাদা রূপে ধরা দিলেন তিনি।

সংশোধনাগার সূত্রের খবর, ষষ্ঠীতে প্রেসিডেন্সি সংশোধনাগারে নাকি ঢাক বাজান পার্থ চট্টোপাধ্যায়। তাও এক-দুই মিনিট নয়, টানা দশ মিনিট ঢাক বাজিয়েছেন তিনি। জানা গিয়েছে, প্রেসিডেন্সি সংশোধনাগারের পুজো মণ্ডপেও যান পার্থ চট্টোপাধ্যায়। সেখানে সংশোধনাগারের অন্যান্য বন্দিদের অনুরোধেই বেশ কিছুক্ষণ ঢাক বাজান তিনি। এরপর প্রনাম করে মণ্ডপ ছেড়ে চলে আসেন তিনি।

অপরদিকে, পুজোয় বরাবর সক্রিয় ভূমিকায় দেখা গিয়েছে এসএসসি নিয়োগ দুর্নীতি কাণ্ডে ইডি-র হাতে গ্রেফতার হওয়া মডেল অভিনেত্রী অর্পিতা মুখোপাধ্যায়কে। তিনি নাকতলা উদয়ন সংঘের মুখ ছিলেন একটা সময়। পাশাপাশি পাড়ার পুজোতেও তাঁর বেশ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা ছিল। জানা যাচ্ছে, পুজোয় জেলবন্দি থাকার জন্য আক্ষেপের সুর শোনা গিয়েছে অর্পিতার কণ্ঠেও। তবে জেলে পুজো উপলক্ষ্যে ছিল ‘বিশেষ মেনু’। পাতে পড়েছে ডাল, বেগুন ভাজা, সবজি, মাঝের ঝোল , চাটনি। আর খাবারের তালিকা দেখে বেশ খুশি হয়েছেন অর্পিতা। এমনটাই জানা যাচ্ছে।

পুজোর দিনগুলিতে

সংশোধনাগারের আবাসিকদের জন্য রয়েছে বিশেষ খাবার দাবারের ব্যবস্থা। সেক্ষেত্রে পার্থ এবং অর্পিতা ওএই দিনগুলিতে বিশেষ খাবার-দাবার ভোজ তালিকায় পাবেন। প্রসঙ্গত, রাজ্যের প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে পুজোর দিনগুলিতে দেখা যেত নাকতলা উদয়ন সংঘে। একাধিকবার তাঁর সঙ্গে সেখানে উপস্থিত ছিলেন অর্পিতাও। পুজোর সময় পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে অর্পিতার একটি ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় মারাত্মক ভাইরাল হয়। লাল পাঞ্জাবি পরে ছিলেন পার্থ। অন্যদিকে, লাল আটপৌরে শাড়িতে নিজেকে দারুণ ভাবে সাজিয়েছিলেন অর্পিতা।

Related Articles