টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গরাজনীতি

মুখোমুখি জেরায় অর্পিতার সঙ্গে ‘ঘনিষ্ঠতা’ প্রসঙ্গে বিস্ফোরক দাবি পার্থর! কী বললেন মন্ত্রিমশাই?

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ এসএসসি (SSC) দুর্নীতি মামলায় বর্তমানে ইডি (ED) হেফাজতে রয়েছেন পার্থ চট্টোপাধ্যায় (Partha Chatterjee) এবং তাঁর ঘনিষ্ঠ অর্পিতা মুখোপাধ্যায় (Arpita Mukherjee)। সাম্প্রতিক সময়ে অর্পিতার ফ্ল্যাট থেকে কোটি কোটি নগদ অর্থ এবং একাধিক সোনা গয়না উদ্ধারের ঘটনায় হতবাক সকলে। ইতিমধ্যেই আদালতের নির্দেশে হেফাজতে রয়েছেন তারা। এর মাঝেই গতকাল মুখোমুখি বসিয়ে জেরা করা হয় পার্থ-অর্পিতাকে। তবে ইডি সূত্রে খবর, জেরায় একে অপরের সম্পূর্ণ বিপরীত কথা বলেছেন দুজনেই।

একদিকে অর্পিতা যখন পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে তাঁর ‘ঘনিষ্ঠতা’-র কথা অকপটে স্বীকার করে নিয়েছেন, আবার অপরদিকে পার্থের দাবি, “অর্পিতাকে তেমন ভাবে চিনি না।” ফলে স্বাভাবিকভাবেই ইডির সামনে বর্তমানে একাধিক প্রশ্ন চিহ্ন সৃষ্টি হয়ে চলেছে, যার জট ছাড়াতে তৎপর তারা।

গতকাল পার্থ চট্টোপাধ্যায় এবং অর্পিতা মুখোপাধ্যায়কে পরস্পরের মুখোমুখি বসিয়ে জেরা করে ইডি। সম্পূর্ণ জেরার ভিডিও রেকর্ড হয়েছে বলে খবর। তবে জিজ্ঞাসাবাদের সময় দুজনের বক্তব্য ‘পরস্পর বিরোধী” বলেই জানা গিয়েছে। অর্পিতা মুখোপাধ্যায়কে জেরা করার সময় প্রাক্তন তৃণমূল কংগ্রেস মহাসচিবের সঙ্গে তাঁর ঘনিষ্ঠতার কথা অকপটে স্বীকার করে নেন তিনি। বর্তমানে ইডি মারফত এমনটাই খবর মিলছে।

সূত্রের খবর, ইডির জিজ্ঞাসাবাদের মুখে অর্পিতা জানান যে, পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের স্ত্রী-এর মৃত্যুর পর থেকে তাঁর সঙ্গে ঘনিষ্ঠতা বাড়ে প্রাক্তন মন্ত্রীর। এমনকি, পরবর্তীতে দামি সোনা-গয়না কেনা থেকে শুরু করে বিলাসবহুল জীবন প্রসঙ্গেও একাধিক গুরুত্বপূর্ণ মন্তব্য করেন অর্পিতা। এর পরেই তিনি জানান, “বয়সে পার্থক্য থাকলেও পার্থদা আমার ভালো বন্ধু। ২০১২ সাল থেকে পরিচয় থাকলেও ২০১৭ তে পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের স্ত্রী মারা যাওয়ার পর সেই ঘনিষ্ঠতা আরো বাড়ে।”

তবে অর্পিতা মুখোপাধ্যায় এহেন বক্তব্য রাখলেও সম্পূর্ণ ভিন্ন সুর শোনা গিয়েছে পার্থর গলায়। সূত্রের খবর, অর্পিতা প্রসঙ্গে প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী জানান, “অর্পিতাকে আমি তেমনভাবে চিনি না। মাঝেমধ্যে দেখেছি, অনেকের মত অর্পিতা-ও আসতো।” পরবর্তীতে ঘনিষ্ঠতা প্রসঙ্গে পার্থ জানান, “নাকতলার পুজোর সময় অর্পিতাকে দেখেছি।” সূত্রের খবর গতকাল ইডি জেরার মুখে উঠে আসে অর্পিতার ফ্ল্যাট থেকে উদ্ধার হওয়া কোটি কোটি টাকা প্রসঙ্গ। সে সম্পর্কে পার্থকে জিজ্ঞাসা করা হলে তাঁর জবাব, “বাড়ি থেকে টাকা মেলার খবর শুনেছি। তবে ওই টাকা আমার নয়।” এমনকি ঐ টাকা কার, সে প্রসঙ্গেও স্পষ্ট কোন জবাব দেননি পার্থ।

ইডির দাবি, বিগত বেশ কয়েকদিনে অর্পিতা তদন্তে সহায়তা করলেও পার্থের তরফ থেকে বিশেষ কোনো সাহায্য মেলেনি। এদিন আদালতে ফের একবার পেশ করা হতে চলেছে পার্থ-অপিতাকে। সূত্রের খবর, এদিন আদালতের সামনে কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা দ্বারা এ সকল তথ্যই তুলে ধরা হতে চলেছে।

Related Articles

Back to top button