টাইমলাইনদুর্গা পূজো ২০১৯পশ্চিমবঙ্গ

একাদশীর দিন রাজবেশে নাকতলা উদয়ন সংঘে উপস্থিত শিক্ষামন্ত্রী

বাংলা হান্ট ডেস্ক: দূর্গা পূজা শেষ আজ একাদশী শহরের আনাচে-কানাচে মানুষের ঢল আর নামবে না। অল্প বিস্তর মানুষ ঠাকুর দেখতে বেরোলেও, পুজোর আমেজ এখন খানিকটা কমে এসেছে এই বললে চলে। প্রতি বছরের মতো এ বছরও কলকাতার সমস্ত নামজাদা ক্লাব গুলি চমক দেখিয়েছে তাদের পুজো প্যান্ডেল এবং দুর্গা মূর্তির বেশভূষায়।

এদের মধ্যে নাকতলা উদয়ন সংঘ অন্যতম, এবছরও বিভিন্ন পুরস্কারে পুরস্কৃত হয়েছে ক্লাব। তবে কথায় আছে না যার শেষ ভালো তার সব ভালো। এই শেষেই চমক দেখাল নাকতলা উদয়ন সংঘ। একাদশীর দিন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় ফিয়াট গাড়িতে চেপে রাজবেশে হঠাৎই মণ্ডপে চলে এসে নিজের আমেজ দেখালেন। পরনে ব্লক প্রিন্টের ধুতি, লাল সিল্কের পাঞ্জাবী সঙ্গে উত্তরীয়। সব মিলিয়ে একেবারে রাজকীয় রুপে সর্বসমক্ষে দেখা দিলেন রাজ্যের শিক্ষা মন্ত্রী।

এদিন নাকতলা উদয়ন সংঘতেই নিজের শুভ বিজয়া সুসম্পন্ন করলেন তিনি। বললেন, “জীবনে তিনবার ধুতি পরেছি। একবার বিয়েতে, দ্বিতীয়টা মন্ত্রী হিসেবে প্রথম শপথ নেওয়ার সময়ে আর এইবার।” শুধু তাই নয় এর পাশাপাশি পার্থর পাঞ্জাবির রং নিয়ে কথা উঠতেই, তিনি বেশ নাটকীয় ভাবেই উত্তর দিয়ে বলেন “লাল পাঞ্জাবি তাতে কী? সিঁদুরের রং লাল, রক্তের রং-ও লাল। লাল সিঁদুর, লাল আলতা পরতে পারলে পাঞ্জাবি নয় কেন।”

শুধু তাই নয় তিনি আরও প্রশ্ন ছুড়ে দেন ‘লাল এর প্রতি এত বিদ্বেষ কেন?’। এর পাশাপাশি এদিন তিনি আরো প্রকাশ করেছেন যে জামা কাপড়ের রং শুধু আপেক্ষিক মাত্র, তাতে কিছু এসে যায় এর কারণে তার আদর্শ যে কোনো পরিবর্তন ঘটবে না, তা স্পষ্ট করেছেন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়।

Leave a Reply

Close
Close