টাইমলাইনভারত

মানুষ গৃহবন্দী, নির্মল হচ্ছে পৃথিবী

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ  করোনার কারণে কার্যত বিশ্বের একটা বিরাট অংশ গৃহবন্দী। বিভিন্ন সামাজিক মাধ্যম গুলোতে ছড়িয়ে পড়া ছবিগুলি জানান দিচ্ছে যে মানুষের এই গৃহবন্দি হয়ে থাকার ফলে প্রাণ খুলে হাসছে প্রকৃতি। প্রকৃতির স্বাভাবিক নিয়ম মেনে নির্ভয়ে বিচরণ করছে ডলফিন, হরিণের মত লাজুক বন্যপ্রাণীরা।
ভারতেও লক ডাউনের ফলে গৃহবন্দি মানুষ, যে কারণে রাস্তাঘাটে কার্যত কোন গাড়ির দেখা মিলছে না ফলে কমে গেছে দূষণ। ভারতের বাতাস হয়েছে অনেকটাই নির্মল জানাচ্ছে সমীক্ষা।

ন্যাশনাল অ্যারোনটিকস অ্যান্ড স্পেস অ্যাডমিনিস্ট্রেশনের (NASA) সুপার কম্পিউটারগুলি দ্বারা উত্পন্ন আবহাওয়ার (Weather) মানচিত্রগুলি দেখায় যে এই বছর ভারতে দূষণ ছিল গত বছরের একই সময়ের তুলনায় এ বছর যথেষ্ট কম।

IMG 20200401 194413 Bangla Hunt Bengali News
পার্টিকুলেট ম্যাটার (পিএম) কম হলে নীল হল স্কেলের নীচের প্রান্ত, এবং এটি যত বেশি হয় – তত লাল হয়। গত বছর, ভারতে 30 মার্চ 2019 তে লালচে রঙের তুলনায় , এই বছর আকাশ বেশিরভাগই নীল দেখায়। এমনকি মাটি থেকেও আকাশ যথেষ্টই নীল দেখা যাচ্ছে।

কিছুদিন আগেই সামাজিক মাধ্যমগুলোতে ভাইরাল হয়েছিল মুম্বাইয়ের পরিষ্কার নীল আকাশের ছবি। যা স্পষ্ট প্রমাণ করে দূষণ এর করাল গ্রাস কাটিয়ে উঠছে বাণিজ্য নগরী। পাশাপাশি রাজধানী শহর দিল্লিতে a.q.i এর স্তর উল্লেখযোগ্যভাবে কমেছে।

দিল্লি শহর বায়ু দূষণের ক্ষেত্রে বিশ্বের প্রথম সারিতে রয়েছে। সেখানে a.q.i এর পরিমান 38 এর নিচে নেমে গেছে যা খুবই স্বস্তিদায়ক। লকডাউন এর ফলে দিল্লির বাতাসে নাইট্রোজেন অক্সাইড এর পরিমাণ রেকর্ড হারে কমে গেছে। সাফারের তথ্য থেকে জানা গেছে যে ২৫ শে মার্চ দিল্লির সামগ্রিক একিউআই স্কোর ৮৮ ছিল।

Back to top button