টাইমলাইনআন্তর্জাতিক

সুইডেনে ছড়িয়ে পরা অশান্তির মধ্যে পোল্যান্ডের সাংসদ বললেন, আমাদের দেশে একটিও মুসলিমকে ঢুকতে দেব না

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ সুইডেনের (Sweden) মালমো (Malmo) শহরে কুরআন নিয়ে অশান্তি ছড়িয়ে পড়ার পর প্রতিবেশী দেশ পোল্যান্ডের সাংসদের বয়ান চর্চায় বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। একটি টিভি চ্যানেলের সাথে কথা বলার সময় পোল্যান্ডের সাংসদ Dominik Tarczyński বলেন, মুসলিম শরণার্থীদের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি আছে বলেই পোল্যান্ড এখনো সুরক্ষিত আছে। গোটা বিশ্বের মুসলিম দেশ গুলো পোল্যান্ডকে ইসলাম বিরোধী আখ্যা দেয়। এই দেশ ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের মুসলিম শরণার্থীদের শরণ দেওয়ার প্রস্তাব খারিজ করে দেয়।

ইতিমধ্যে পোল্যান্ডের সাংসদের একটি ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে, যেখানে ওনাকে সাংবাদিকেরা জিজ্ঞাসা করেন যে, পোল্যান্ডে কতজন মুসলিম শরণার্থীকে শরণ দেওয়া হয়েছে? তখন উনি সোজাসুজি বলেন যে ‘শুন্য”। উনি আরও বলেন, আপনি যদি আমাকে অবৈধ মুসলিম শরণার্থীদের নিয়ে জিজ্ঞাসা করেন, তাহলে আমি একটাই কথা বলতে চাই যে আমি আমাদের দেশে একটি মুসলিম শরণার্থীকে শরণ দেব না। উনি বলেন, আমরা ২০ লক্ষের বেশি ইউক্রেন শরণার্থীদের শরণ দিয়েছি, তাঁরা এখানে শান্তিপূর্ণ ভাবে কাজ করে চলেছে।

উনি বলেন, আমরা একজন মুসলিম শরণার্থীকেও দেশে ঢুকতে দিই নি। আর আমরা জনতাকে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলাম যে আমরা এটাই করব। এই কারণেই আমাদের সরকারকে নির্বাচিত করেছে দেশের জনতা। আর এই কারণেই আমাদের দেশ এত সুরক্ষিত। উনি বলেন এই কারণেই আমাদের দেশে একটিও সন্ত্রাসবাদী হামলা হয় নি। উনি বলেন, আমাদের অনেকে মুসলিম বিরোধী আর উগ্র জাতীয়তাবাদী বলে আখ্যা দেয়, কিন্তু আমরা সেটা নিয়ে কোন পরিয়া করিনা। আমি শুধু আমার দেশ আর আমার পরিবার নিয়ে পরোয়া করি।

পোল্যান্ডের ক্ষমতায় থাকা দল ২০১৯ এর শরণার্থীদের ইস্যু নিয়ে ক্ষমতায় এসেছিল। তখন সাংসদ ডোমেনিক বলেছিলেন যে আমার কাছে বহুসাংস্কৃতিক সমাজের কোন মূল্য নেই। ইসাই সংস্কৃতি, রোমান আইন আর গ্রিকের দর্শন আমাদের কাছে বহুমুল্য। ব্রিটেন আর মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে থাকার পর আর সেখানকার বহুসাংস্কৃতিক সমাজকে অনুভব করার পর আমি এরমধ্যে কোন মূল্য খুঁজে পাই নি।

Related Articles

Back to top button