টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গরাজনীতি

‘নেশাখোর, তোলাবাজ, চরিত্রহীন আর নয়”, কল্যাণের বিরুদ্ধে পোস্টার পড়ল রিষড়ায়

বাংলাহান্ট ডেস্ক: আবারও প্রকাশ্যে তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব৷ পার্থ-মদন সংঘাতের মাঝেই এবার  পোস্টার পড়ল শ্রীরামপুরের তৃণমূল সাংসদ কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে। সোমবার সকাল থেকেই ‘আর নয় কল্যাণ,অ-কল্যাণের মুক্তি চাই’ লেখা পোস্টারে ছেয়ে গেল রিষড়ার রাস্তাঘাট।

দিন দুয়েক আগেই অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরোধিতা করে বিতর্কের কেন্দ্রবিন্দুতে এসেছেন শ্রীরামপুরের তৃণমূল সাংসদ কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়। যার জেরে ইতিমধ্যেই  দলেরই একাধিক নেতার কটাক্ষের শিকারও হতে হয়েছে তাঁকে।এমনকি বেশ কিছু জায়গায় পোড়ানো হয়েছে কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়ের কুশপুত্তলিকা। এই বিতর্ককে আরও খানিকটা উস্কে দিল এই পোস্টার। সোমবার সকাল থেকেই কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে লেখা এই পোস্টারের দেখা মেলে রিষড়ার ওয়েলিংটন জুটমিল, মৈত্রীপথ, ছাইরোড সহ বিভিন্ন এলাকায়।

‘আর নয় কল্যাণ। অ-কল্যাণের মুক্তি চাই। সুস্থ শহর পরিচ্ছন্ন মানুষ। নেশাখোর-তোলাবাজ-চরিত্রহীন আর নয় আর নয়। দিদি তুমি বিচার করো। দাদা তুমি বিচার করো’ এমনই বিভিন্ন কটাক্ষ লেখা হয়েছে পোস্টারগুলিতে। দিনদুয়েক আগে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে সরব হওয়ার পর কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়কে হুঁশিয়ারি দিয়েছে তৃণমূলের শৃঙ্খলা রক্ষা কমিটি। তারপর থেকে অবশ্য আর কোনো কিছুতেই মুখ খুলতে দেখা যায়নি শ্রীরামপুরের সাংসদকে। তবে সূত্রের খবর গত কয়েকদিন তিনি বিতর্ক এড়িয়ে চললেও রিষড়া-শ্রীরামপুর এলাকায় সক্রিয় হয়ে উঠেছে তৃণমূলের আরেকটি গোষ্ঠী। এই পোস্টারও তাদের কাজ বলেই দাবি তৃণমূলের।

প্রসঙ্গত, শনিবার থেকে মদন-পার্থ তরজায় সরগরম রাজ্য রাজনীতি। কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়ের পর পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে ফেসবুক লাইভে বিস্ফোরক মন্তব্য করেছেন মদন মিত্র। পুরো ব্যাপারটি অবশ্য ‘দলের ব্যাপার দলই বুঝে নেবে’ বলে এড়িয়ে গেছেন তৃণমূলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়। কিন্তু এবার সমস্ত বিতর্কে ঘৃতাহুতি দিয়ে এই পোস্টার আরও বেশি করে সামনে আনল ঘাসফুল শিবিরের গোষ্ঠীদ্বন্দ্বকে। তবে কি অচিরেই ভাঙন ধরতে চলেছে রাজ্যের শাসকদলে? বিভিন্ন মহলে উঠছে প্রশ্ন।

Related Articles

Back to top button