টাইমলাইনবিনোদন

সুচিত্রা সেনের কোলে চড়ে আদর খাচ্ছেন ছোট্ট বুম্বা, মহানায়িকার জন্মদিনে শ্রদ্ধার্ঘ‍্য প্রসেনজিতের

বাংলাহান্ট ডেস্ক: উত্তম কুমারের সঙ্গে যে নামটা একসঙ্গে উচ্চারিত হয় তা হল সুচিত্রা সেন (suchitra sen)। একজন বাঙালির মহানায়ক ও অপরজন মহানায়িকা। স্বর্ণযুগের বাংলা ছবির প্রসঙ্গ উঠলে অবধারিত ভাবে আসবে উত্তম সুচিত্রার নাম। চিররঙিন এই জুটি এখনো বাঙালির মনে একই রকম ভাবে উজ্জ্বল।

গতকাল ৬ এপ্রিল ছিল মহানায়িকা সুচিত্রা সেনের জন্মদিন। ১৯৩১ সালে আজকের পূর্ববঙ্গের পাবনা জেলায় জন্মগ্রহণ করেন সুচিত্রা সেন। তবে প্রথম থেকেই কিন্তু এই নামে পরিচিত ছিলেন না তিনি। মা বাবা তাঁর নাম রেখেছিলেন রমা দাশগুপ্ত। অভিনয়ে আসার সময় এই নাম পরিবর্তন করেন তিনি।


এমনকি উত্তম কুমারের সঙ্গে যে এক বিশেষ সম্পর্কের গুঞ্জন শোনা যায় সুচিত্রার, তিনি কিন্তু অভিনয়ে আসার আগে থেকেই বিবাহিত ছিলেন। ১৯৪৭ সালে ব‍্যবসায়ী আদিনাথ সেনের সঙ্গে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন তিনি। তারও অনেক পরে অভিনয় জগতে পা রাখেন রমা ওরফে সুচিত্রা সেন।

১৯৫২ সালে ‘শেষ কোথায়’ ছবির হাত ধরে অভিনয় জগতে পথ চলা শুরু সুচিত্রার। পরের বছরেই ছবি ‘সাড়ে চুয়াত্তর’, উত্তম কুমারের সঙ্গে। প্রথম থেকেই জনপ্রিয়তার চূড়ায় পৌঁছে যখন সুচিত্রা সেন। একের পর এক প্রতিটি ছবিই সুপার ডুপার হিট। উত্তম কুমার সুচিত্রা সেন ছবিতে থাকা মানেই সেই ছবি হিট হবেই, এমনটাই চল ছিল তখন। ধীরে ধীরে নামের সঙ্গে মহানায়িকার তকমাও পেয়ে যান সুচিত্রা।

তাঁর জন্মবার্ষিকীতে পুরনো স্মৃতিগুলি যেন নতুন করে তাজা হয়ে উঠেছে। বাংলা বিনোদন জগতের সমস্ত কলাকুশলীরাই জন্মদিনের শ্রদ্ধা জানিয়েছেন সুচিত্রা সেনকে। তবে তার মধ‍্যে থেকে অভিনেতা প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ‍্যায়ের (prasenjit chatterjee) শুভেচ্ছা বার্তা কেড়েছে সবার নজর।

মহানায়িকার সঙ্গে নিজের একটি ছবি শেয়ার করে শ্রদ্ধা জানিয়েছেন প্রসেনজিৎ। তবে তিনি খুবই ছোট।  অভিনেতার শেয়ার করা ছবিতে দেখা যাচ্ছে সুচিত্রার কোলে রয়েছেন তিনি। মহানায়িকা আদর করছেন তাঁকে। ক‍্যাপশনে লিখেছেন, ‘আজ মহানায়িকার জন্মবার্ষিকীতে জানাই বিনম্র প্রণাম ও শ্রদ্ধা। এই মুহূর্তটি ক‍্যামেরাবন্দি হওয়ায় নিজেকে ভাগ‍্যবান মনে করি আমি।’

Back to top button