টাইমলাইনবিনোদনভিডিও

টলিউডে প্রসেনজিতের বিরুদ্ধে স্বজনপোষনের গুরুতর অভিযোগ শ্রীলেখার, অবশেষে মুখ খুললেন অভিনেতা

বাংলাহান্ট ডেস্ক: জুন মাসের শেষের দিকে টলিউড (tollywood) ইন্ডাস্ট্রি তোলপাড় হয়ে যায় অভিনেত্রী শ্রীলেখা মিত্রের (sreelekha mitra) একটি ভিডিওর জন‍্য। প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ‍্যায় (prasenjit chatterjee) ও ঋতুপর্ণা সেনগুপ্তের বিরুদ্ধে স্বজনপোষনের অভিযোগ আনেন শ্রীলেখা। এমনকি তাঁকে সরিয়ে ছবিতে ঋতুপর্ণাকে সুযোগ দেওয়ার অভিযোগও করেন অভিনেত্রী।

সেই সময় মুখ না খুললেও অবশেষে এই বিষয়ে মৌনব্রত ভাঙলেন প্রসেনজিৎ। অভিনেতা জয়জিৎ ব‍ন্দোপাধ‍্যায়ের সঙ্গে একটি লাইভ চ‍্যাটে কারোর নাম না করেই তিনি তাঁর বিরুদ্ধে ওঠা যাবতীয় অভিযোগের উত্তর দেন।

অভিনেতার কথায়, “সিনেমা জগতে আমার প্রায় ৩৫ বছর হয়ে গিয়েছে। এই সিনেমার জগতটা গোটা পৃথিবী জুড়ে একই রকম‍। আমার একটাই প্রশ্ন, কেউ যদি আমায় ভুল প্রমাণ করতে পারে আমি মাথা পেতে নেব। তুমি সবকিছু করতে পারো। কিন্তু দর্শক টিকিট কেটে সিনেমা দেখবে কিনা সেটা তোমার হাতে নেই। তুমি জোর করে তাদের টিকিট কাটাতে পারবে?”

প্রসেনজিৎ আরো বলেন, “দর্শকরা নিজের পছন্দের অভিনেতা, অভিনেত্রী, পরিচালক, স্ক্রিপ্ট রাইটারের ছবি দেখবে। কোনো শক্তি দিয়ে তাদের জন্য আটকানো যাবে না। ঈশ্বরের আশীর্বাদে, পশ্চিমবাংলার মানুষদের আশীর্বাদে মানুষ আমার সিনেমা দেখেন। এতে আমার কোনো দোষ বা অন‍্যায় নেই।”

প্রসঙ্গত, গত জুন মাসে টলিউড ইন্ডাস্ট্রির একাংশের প্রতি তোপ দেগে শ্রীলেখা বলেন, “ইন্ডাস্ট্রিতে গডফাদার খুব গুরুত্বপূর্ণ। যারা কোনও কিছুর বিনিময়ে কাজ পাইয়ে দেন। আমার সেই কোনও গডফাদার ছিল না। সেসময় প্রসেনজিৎ, চিরঞ্জিত, তাপস দা রাই ইন্ডাস্ট্রি চালাত। কিন্তু বুম্বাদা ছিলেন নাম্বার ওয়ান।

সেসময় আমার যোগ‍্যতা থাকা সত্ত্বেও নায়িকার চরিত্র দেওয়া হত না। কারন তখন ঋতুপর্ণার সঙ্গে প্রসেনজিতের প্রেম চলছে। ঋতুপর্ণা দেরি করে এসেও নায়িকার রোল পেয়ে যেতেন। সেজন‍্য টেলিভিশনে কাজ শুরু করি। আমার তো কোনও পরিচালক প্রযোজকের সঙ্গে প্রেম হয়নি। কে দেবে আমায় কাজ? তাছাড়া আমি ট‍্যারা কথা বলি, সুন্দরী হওয়ার সুযোগও নিই না।”

Back to top button