টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গ

কারও লাহোর, তো কারও দুবাই! সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল টেটের অ্যাডমিট কার্ড নিয়ে মুখ খুলল পর্ষদ

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ এক টেট (TET) নিয়েই বিগত কিছু বছর থেকে কতই না জলঘোলা! কলকাতার রাজপথে হচ্ছে চাকরি প্রার্থীদের আন্দোলন-অনশন, অন্যদিকে আদালতে চলছে মামলা। এরই মাঝে আগামী ১১ ডিসেম্বর রাজ্যজুড়ে হতে চলেছে প্রাথমিকের টেট পরীক্ষা। প্রকাশিত হয়েছে অ্যাডমিট কার্ড (Admit Card)। তবে চলুন এবার অনুমান করুন পশ্চিমবঙ্গের পরীক্ষার্থী, পশ্চিমবঙ্গের পরীক্ষা, সেই পরীক্ষার সিট কত দূরে পড়তে পারে? পচিমবঙ্গের মধ্যেই কোনো রাজ্যে তাই তো? আজ্ঞে না মশাই ! রাজ্য তো দূর, অনেক পরীক্ষার্থীর সিট পড়েছে দেশের বাইরেও।

আজব এক ঘটনা হলেই, এটাই সত্যি। এবার পরীক্ষা বা চাকরি নয়, বরং তার আগেই প্রাথমিক টেট পরীক্ষার অ্যাডমিট কার্ড নিয়ে শুরু হয়েছে নয়া বির্তক । গত মাসের ৩০ তারিখ সংশ্লিষ্ট পরীক্ষাটির অ্যাডমিট কার্ড প্রকাশিত হয়েছে। আর তাতেই কয়েকজনের পরীক্ষার সিট পড়েছে দুবাই ও লাহোরে।

অয়ন কোলে নামে হুগলির এক পরীক্ষার্থীর পরীক্ষাকেন্দ্রের জায়গায় লেখা রয়েছে এইচসিটি কলেজ মেইন, দুবাই, নীচে লেখা ইউএই। আবার এক পরীক্ষার্থীর সিট পড়েছে ওপার বাংলায়, আবার কারও লাহোরে। আর সেইসব অ্যাডমিট কার্ডের ছবিই ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। শুরু হয়েছে বিতর্ক।

এবিষয়ে প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদের প্রতিক্রিয়া :
পর্ষদ তরফে জানানো হয়েছে যে এমন অ্যাডমিট কার্ডের কোনও অস্তিত্ব নেই। ভাইরাল হওয়া অ্যাডমিট কার্ডগুলি ভুয়ো বলে জানিয়েছে প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদ। এমনকী ওই অ্যাডমিট কার্ডগুলিতে উল্লখিত কোনও প্রার্থী রয়েছে কিনা তা নিয়েও সংশয় প্রকাশ করেছে পর্ষদ। পর্ষদ তরফে জারি করা হয়েছে একটি বিজ্ঞপ্তিও। টেট নিয়ে বিভ্রান্তি ছড়াতে এবং প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদকে বদনাম করতে এই ধরনের ভুয়ো অ্যাডমিট কার্ড সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়ানো হয়েছে বলে সংশ্লিষ্ট বিজ্ঞপ্তিতে জানায় প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদ। এমনকী এই ধরনের নমুনা আর পাওয়া গেলে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে উপযুক্ত ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে। ইতিমধ্যেই বিধাননগর সাইবার ক্রাইমে অভিযোগ জানানো হয়েছে পর্ষদ তরফে।

Related Articles