টাইমলাইনভারতআন্তর্জাতিক

‘মন কি বাত’ অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী মোদী করলেন ভূয়সী প্রশংসা, জানুন কে এই বিদেশী ব্যাক্তি

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ ভারতের (india) সংস্কৃতি এবং ঐতিহ্য সর্বদাই সকলের আকর্ষণের কেন্দ্রবিন্দুতে পরিণত হয়েছে। বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে মানুষজন ভারতে এসে এদেশের সংস্কৃতিকে ভালোবেসে নিজের করে নিতে চায়। ভারতের এই সংস্কৃতিকে ভালোবেসেই ব্রাজিলের জোনাস মাসেটি (jonas masetti) নামের এক ব্যক্তি নিজের ব্যবসা বাণিজ্য ছেড়ে দিয়ে একমনে আধ্যাত্মিক কাজকর্মে নিজেকে নিয়োজিত করেছেন।

ভারতীয় সংস্কৃতিকে হৃদয় থেকে ভালোবেসে সমস্ত মোহ মায়া ত্যাগ করে ব্রাজিলের জোনাস মাসেটি আধ্যাত্মিক কাজকর্মে নিযুক্ত হয়েছেন। সম্প্রতি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী (narendra modi) নিজের ‘মন কি বাত’ অনুষ্ঠানে ব্রাজিলের এই মহান ব্যক্তির প্রশংসায় পঞ্চমুখ হন।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী জানিয়েছেন, জোনাস মাসেটি ব্রাজিলের বাসিন্দাদের গীতা এবং বেদান্তের শিক্ষা দান করেন। অয়ে বিশ্ববিদ্যা নামের একটি সংস্থাও রয়েছে তাঁর। পেট্রোপলিসের পাহাড়ে রয়েছে তাঁর এই সংস্থা।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী তাঁর ‘মন কি বাত’ অনুষ্ঠানে জোনাস মাসেটির বিষয়ে বলেন, ‘আমার প্রিয় দেশবাসী। ভারতের সংস্কৃতি এবং ঐতিহ্য সর্বদাই সকলের আকর্ষণের কেন্দ্রবিন্দুতে পরিণত হয়েছে। কেউ কেউ তো সংস্কৃতির খোঁজে ভারতে এসে সেখানেই রয়ে গেছে। আবার অনেকে নিজের দেশে ফিরে গিয়ে ভারতীয় সংস্কৃতির প্রচার করতে শুরু করেছেন।

আমি জোনাস মাসেটির কথা শুনেছি, যাকে আবার বিশ্বনাথ নামেও অনেকে চেনেন। যিনি ব্রাজিলের বাসিন্দাদের গীতা এবং বেদান্তের শিক্ষা দান করেন। যিনি অয়ে বিশ্ববিদ্যা নামের একটি সংস্থাও চালান তিনি। মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং ডিগ্রি সম্পন্ন করে, স্টক মার্কেটে একটি কোম্পানিতেও কিছু দিন কাজ করেন। কিন্তু পরবর্তীতে ভারতীয় সংস্কৃতির প্রতি একটা ভালোবাসা বোধ জন্মায় তাঁর। ভারতে বেদান্ত দর্শনের অধ্যায়নও সম্পূর্ণ করেছেন তিনি। নিজের বার্তা সকলের মধ্যে অনলাইন অনুষ্ঠানের মাধ্যমে পৌঁছে দিচ্ছেন। বিগত ৭ বছর ধরে তিনি এই কাজ করে চলেছেন তিনি। আমি জোনাস মাসেটি তাঁর এই বৃহৎ মানসিকতা এবং এই কর্মকান্ডের কারণে অনেক অভিনন্দন এবং ধন্যবাদ জ্ঞাপন করছি’।

Back to top button