টাইমলাইনভারতআন্তর্জাতিক

দুঃখ প্রকাশ করে সকাল সকাল ট্যুইট প্রধানমন্ত্রী মোদীর, আমেরিকার হিংসা নিয়ে তোলপাড় বিশ্ব

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ উত্তাল হয়ে রয়েছে ওয়াশিংটন ডিসি (Washington, D.C.)। নির্বাচনে রাষ্ট্রপতির পদ হারিয়ে কিছুতেই মেনে নিতে পারছেন না ডোনাল্ড ট্রাম্প (donald trump)। নব নির্বাচিত রাষ্ট্রপতি জো বিডেনকে কোনভাবেই হোয়াইট হাউসে নিজের জায়গা ছেড়ে দিতে নারাজ বিদায়ী মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। বিগত কয়েকদিন ধরে তাই ট্রাম্প সমর্থকদের বিক্ষোভ প্রদর্শনে উত্তপ্ত হয়ে রয়েছে রাজধানী ওয়াশিংটন ডিসি।

পরিস্থিতি সামাল দিতে পুলিশ পৌঁছালে, পুলিশের সঙ্গে দফায় দফায় সংঘর্ষ চলে ট্রাম্প সমর্থকদের। ক্যাপিটল বিল্ডিংয়ে জোর করে ঢোকার চেষ্টা করে ট্রাম্প সমর্থকরা। মুহূর্তের মধ্যে রণক্ষেত্রে পরিণত হয় রাজধানী। চলে গুলি।

ক্যাপিটাল বিল্ডিং-এ ট্রাম্প সমর্থকদের এই হামলা চালানোর ঘটনায় নিন্দা প্রকাশ করেছেন অনেকেই। ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী (narendra modi) এই বিষয়ে এক ট্যুইট বার্তায় বলেন, ‘বর্তমানে সময়ে ওয়াশিংটন ডিসি-তে ঘটা এই হিংসাত্মক ঘটনা সত্যই বেদনাদায়ক। গণতন্ত্র কখনই এই ধরণের হিংসাকে সমর্থন করে না। ক্ষমতা হস্তান্তর শান্তিপূর্ণ ভাবেই হওয়া উচিত’।

রাষ্ট্রপতির ক্ষমতা জো বিডেনের হাতে ছেড়ে দিয়ে নারাজ ডোনাল্ড ট্রাম্প। তিনি কোনভাবেই মানতে পারেননি নির্বাচনে বিডেনের জয়লাভ। সেই নিয়ে প্রথম থেকেই নানা সমস্যা দেখা দিলেও, মাঝে বেশকিছু দিন সবকিছু শান্ত ছিল। ধারণা করা হয়েছিল, ট্রাম্প বুঝি এবার শান্ত হয়েছেন। কিন্তু না, উল্টে ট্রাম্প সমর্থকরা ‘মার্চ টু সেভ অ্যামেরিকা’ ব্যানার নিয়ে রাস্তায় নামলেন। শ্লোগান দিলেন ট্রাম্পের নামে। এমনকি স্যোশাল মিডিয়ায় এই সকল হিংসাত্মক ভিডিও পোস্ট করায় ট্রাম্পের ট্যুইটার অ্যাকাউন্ট ১২ ঘন্টার জন্য এবং ইন্সটাগ্রাম অ্যাকাউন্ট ২৪ ঘন্টার জন্য বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

Back to top button