টাইমলাইনবিনোদন

ছেলে মেসির পাগল ভক্ত, ঠাকুরঘরেও লাগানো লিওনেলের ছবি! বিশ্বকাপ জ্বরে কাবু প্রসেনজিৎ

বাংলাহান্ট ডেস্ক: গোটা বিশ্বের চোখ এখন কাতারের দিকে। বিশ্বকাপ (FIFA Worldcup) জ্বরে আক্রান্ত শহর কলকাতাও। ব্রাজিল, আর্জেন্টিনার (Argentina) চিরাচরিত প্রতিদ্বন্দ্বিতায় সামিল তাদের সমর্থকরাও। এবারের বিশ্বকাপ যেন শুরু থেকেই অঘটনের সাক্ষী হয়ে চলেছে। সৌদির বিরুদ্ধে দু গোলে হারার পর শনিবার ডু অর ডাই ম‍্যাচ ছিল আর্জেন্টিনার কাছে। প্রথমার্ধ চরম উদ্বেগের মধ‍্যে রাখলেও ম‍্যাচের মোড় ঘুরিয়ে দেন মেসি (Lionel Messi)। দুর্দান্ত জয় দিয়ে বিশ্বকাপের মূল স্রোতে ফেরে নীল সাদা দল।

শনিবার মধ‍্যরাতের পরেই কলকাতায় বাজির শব্দ। রাস্তায় রাস্তায় ‘মেসি মেসি’ বলে চিৎকার। রাত জেগে ম‍্যাচ দেখছেন কলকাতার আরেক আর্জেন্টিনা ভক্ত প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ‍্যায় (Prosenjit Chatterjee)। আরো অনেকের মতো তিনি লিওনেলের অনুরাগী। তবে ‘ইন্ডাস্ট্রি’ জানান, তাঁর ছেলে তৃষাণজিৎ নাকি মেসি বলতে পাগল।


বিশ্বকাপে ভারত কোয়ালিফাই করতে না পারলেও কলকাতার রন্ধ্রে রন্ধ্রে ফুটবল। যে শহর মোহনবাগান ইস্টবেঙ্গলের ডার্বি নিয়ে ঝড় তোলে, সেই শহর যে ফুটবলের মহোৎসবের প্রত‍্যেকটা মুহূর্ত তারিয়ে তারিয়ে উপভোগ করবে না তা বলার অপেক্ষা রাখে না। সংবাদ মাধ‍্যমকে প্রসেনজিৎ বলেন, রাত জেগে খেলা দেখতে গিয়ে সকালে কাজ শুরু করতে বেশ দেরি হয়ে যাচ্ছে। অবশ‍্য সেটা প্রতিবারের বিশ্বকাপের সময়েই হয়।

শনিবারের আর্জেন্টিনা বনাম মেক্সিকোর ম‍্যাচের ব‍্যাপারে অভিনেতা বলেন, এদিনের খেলাটা প্রায় সেমিফাইনাল বা ফাইনালের পর্যায়ে পড়ে। তবে প্রথমার্ধটা দেখে খুব চিন্তায় পড়ে গিয়েছিলেন, শেষমেষ কী হবে। কিন্তু মেসি তাঁর খেল দেখালেন ঠিকই। প্রসেনজিৎ জানান, কাজের মধ‍্যেই তিনি খেলাগুলো দেখার চেষ্টা করেন। রাতের খেলাগুলো দেখেন। কিছুটা দেখে ঘুমিয়ে পড়ার কথা ভাবলেও সেটা আর হয় না শেষমেষ।

প্রসেনজিতের কথায়, এটা একটা ফিভার। মেসি ইজ ব‍্যাক। ছেলে তৃষাণজিৎ নাকি মেসির পাগল ভক্ত। সবসময় মেসিকে থাকেন। এমনকি প্রসেনজিতের ঠাকুর ঘরেও মেসির ছবি লাগানো রয়েছে। তাই আর্জেন্টিনার দুরন্ত জয়ের পর তৃষাণজিতের জন‍্যও খুব খুশি প্রসেনজিৎ।

Related Articles