টাইমলাইনবিনোদনভিডিও

চা করতেন পল্লবী, বিক্রি করতেন দাদা প্রসেনজিৎ, সংসার চালাতে ট‍্যাক্সি পর্যন্ত চালিয়েছেন অভিনেত্রী!

বাংলাহান্ট ডেস্ক: বিশ্বজিৎ চট্টোপাধ‍্যায় থেকে প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ‍্যায় (Prosenjit Chatterjee)। টলিউডের ফিল্মি পরিবার। বিশ্বজিৎ বলিউডে প্রচুর কাজ করলেও ছেলে প্রসেনজিৎ বাংলা ইন্ডাস্ট্রিতেই নিজের রাজ‍্যপাট বসিয়েছেন। বোন পল্লবী চট্টোপাধ‍্যায় (Pallabi Chatterjee) এক সময় অভিনয় করলেও অনেক দিন হল অবসর নিয়েছেন।

কিন্তু তারকাদের জীবন বাইরে থেকে যতটা গ্ল‍্যামারাস দেখায়, বাস্তবটা কিন্তু অনেক সময়ে নাও মিলতে পারে। আজ চট্টোপাধ‍্যায় পরিবারের ঠাঁটবাট দেখার মতো। কিন্তু একটা সময়ে ‘ইন্ডাস্ট্রি’কেও দু পয়সা রোজগারের জন‍্য মাথার ঘাম পায়ে ফেলতে হয়েছে।


কয়েক বছর আগে জনপ্রিয় টেলিভিশন শো ‘অপুর সংসার’এ এসে নিজেদের অতীত জীবনের স্ট্রাগলের কথা তুলে ধরেছিলেন পল্লবী। পুরনো পর্বের ভিডিও গুলি আবার নতুন করে ভাইরাল হচ্ছে সোশ‍্যাল মিডিয়ায়। পল্লবীর পর্বটিও তেমন নতুন করে নজর কেড়ে নিয়েছে নেটনাগরিকদের।

অত‍্যন্ত কম বয়সে বিয়ে হয়ে গিয়েছিল প্রসেনজিতের বোনের। তাঁর যখন মাত্র ১৩ বছর বয়স তখনি জীবনের নতুন ধাপে পা রাখেন পল্লবী। বিয়ে হয় নিজের মায়েরই মামাতো ভাইয়ের সঙ্গে। মা হন মাত্র ১৫-১৬ বছর বয়সে। তবে পড়াশোনা ছাড়েননি তিনি। শ্বশুরবাড়ি থেকেই পড়াশোনা, সঙ্গীত শিক্ষা সবটাই চালিয়েছেন।

আজ যারা টলিউডের অন‍্যতম স্তম্ভ তাদেরই এক সময় চা বিক্রি করে সংসার টানতে হয়েছে। বড় একটি ডেচকিতে চা বানিতেন পল্লবী। দমদমের রাস্তায় চা বিক্রি করতেন প্রসেনজিৎ। যে টাকাটা রোজগার হত সমস্তটা তুলে দিতেন মায়ের হাতে। ভাই বোন মিলে ছোট থেকেই সংসারে সাহায‍্য করেছেন।

এখানেই শেষ নয়। ওই শো তেই পল্লবী জানিয়েছিলেন, এক সময়ে ট‍্যাক্সি চালানোর কাজও করেছেন তিনি। অভিনয়ের স্বপ্ন নিয়ে খুব কম বয়সে কলকাতা এসেছিলেন। কাজ না মেলায় ট‍্যাক্সি চালিয়েই রোজগার করেছেন। আজ অবশ‍্য জীবনে কোনো না পাওয়া নেই প্রসেনজিৎ পল্লবীর। যতটা কষ্ট আগে করেছেন, সুখ ফেরত পেয়েছেন তার অনেক গুণ বেশি।

Related Articles

Back to top button