টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গরাজনীতি

স্ত্রীকে মারধর, বৃদ্ধা শ্বাশুরিকে পিটিয়ে খুনের অভিযোগ তৃণমূল কর্মীর বিরুদ্ধে! চাঞ্চল্য বর্ধমানে

বাংলাহান্ট ডেস্ক : চলছে উৎসবের মরশুম। চারদিকে আলোর রোশনাই ও আনন্দের মেলা বসেছে। কিন্তু তার মাঝেই অন্ধকার নেমে এলো পূর্ব বর্ধমানের আলুডাঙ্গা এলাকায়। ষষ্ঠীতে মায়ের বোধনের দিন জামাইয়ের হাতে পিটানি খেয়ে মরতে হল বৃদ্ধা শাশুড়িকে। অভিযোগের তির উঠেছে স্থানীয় তৃণমূল কর্মীর বিরুদ্ধে। স্ত্রীকে বেধড়ক মারধরের সাথে নিজের শাশুড়িকে নির্মমভাবে পিটিয়ে হত্যা করেছেন ওই তৃণমূল কর্মী। চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে গোটা এলাকা জুড়ে।

অভিযুক্ত ব্যক্তি তৃণমূল দলের সাথে রাজনৈতিকভাবে সম্পর্কযুক্ত। অভিযুক্ত ব্যক্তি দাবি করেছেন তিনি কোনভাবেই এই ঘটনার সাথে যুক্ত নয়। তাকে মিথ্যা অপবাদ দিয়ে ফাঁসানোর চেষ্টা করা হচ্ছে বলে পাল্টা অভিযোগ অভিযুক্তের। মৃত বৃদ্ধা আজু রাউতের পরিবারের তরফ থেকে থানায় লিখিতভাবে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে ইতিমধ্যেই। পরিবারের সদস্যদের দাবি এই ঘটনার সাথে শুধু ওই ব্যক্তি নয় ওই এলাকার তৃণমূল নেতা শিব শঙ্কর ঘোষের গোপন ষড়যন্ত্র রয়েছে।

স্থানীয় এলাকাবাসীদের সূত্রে খবর, ষষ্ঠীর দিন সকাল বেলা, অভিযুক্ত ব্যক্তি তার ভাগ্নেকে নিয়ে তার শ্বশুর বাড়িতে আসে। অভিযুক্তের স্ত্রীর সাথে আগে থেকেই ব্যক্তির বিবাহ বিচ্ছেদের মামলা চলছিল বলে জানা গিয়েছে। সেই মামলা তুলে নেওয়ার জন্য চাপ দিতেই স্ত্রীর কাছে এসেছিলেন অভিযুক্ত ব্যক্তি। তার নাম শেখ ফিরোজ।

মামলাও তুলে নিতে বলার সময় বিভিন্ন কথা নিয়ে কথা কাটাকাটি চলতে থাকে তার স্ত্রী ও ফিরোজের মধ্যে। তর্ক বিতর্ক হাতাহাতির রূপ নেয়। চোখের সামনে মেয়ে মার খাচ্ছে দেখতে পেয়ে অভিযুক্তের শাশুড়ি মেয়েকে বাঁচাতে ছুটে যান। সেই সময় বৃদ্ধাকেও ছাড়েননি ফিরোজ। এলোপাধারে পেটাতে থাকেন বৃদ্ধাকে এবং তাতেই মৃত্যু ঘটে বৃদ্ধার।

Related Articles