টাইমলাইনবিনোদন

দেশের হয়ে পদক আনছে ছেলে, এদিকে চার বছর ধরে সিনেমায় এক পয়সাও রোজগার নেই আর মাধবনের

বাংলাহান্ট ডেস্ক: সর্বত্র প্রশংসা পাচ্ছেন অভিনেতা আর মাধবনের (R Madhavan) ছেলে বেদান্ত মাধবন। আন্তর্জাতিক সাঁতার প্রতিযোগিতায় দেশের হয়ে সোনা, রূপোর পদক আনছেন তিনি। ছেলের গর্বে গর্বিত মাধবন। তাঁর ছেলে হয়ে বেদান্ত সিনেমা জগতে আসতে চান না, এতে বরং খুশিই অভিনেতা। ছেলের ইচ্ছাটাকেই বরাবর প্রাধান‍্য দিয়ে এসেছেন তিনি।

কিন্তু মাধবনের নিজের পরিস্থিতি যথেষ্ট চিন্তাদায়ক। গত চার বছরে একটা পয়সাও রোজগার হয়নি তাঁর। করোনার আগে ও পরে ‘ডিকাপলড’ ছাড়া একটি ছবিতেও অভিনয় করেননি মাধবন। ফলতঃ কোনো রোজগারই হয়নি। অভিনেতা জানান, সর্বক্ষণ ভয়ে ভয়ে রয়েছেন তিনি।


মাধবনের আগামী ছবি ‘রকেট্রি: দ‍্য নাম্বি এফেক্ট’। বিজ্ঞানী নাম্বি নারায়নণ এর জীবনের উপরে ভিত্তি করে তৈরি এই ছবির চর্চা চলছে অনেক বছর ধরেই। সম্প্রতি ৭৫ তম কান চলচ্চিত্র উৎসবে প্রদর্শিত হয়েছে ছবিটি। ছবিটিতে অভিনয় তো করেছেনই, সেই সঙ্গে পরিচালনা, প্রযোজনা এবং চিত্রনাট‍্যও লিখেছেন মাধবন।

রকেট্রি: দ‍্য নাম্বি এফেক্ট সম্পর্কে বলতে গিয়ে অভিনেতা জানান, ছবিটি নিয়ে সর্বক্ষণ ভয়ে ভয়ে রয়েছেন তিনি। মাধবন বলেন, “আমার একটা ছেলে রয়েছে। সদ‍্য করোনা কাল কাটিয়ে উঠেছি আমরা। করোনার সময়ে একটা টাকাও রোজগার করিনি আমি। মাঝে OTT তে যে একটা ঝুঁকি আমি নিয়েছিলাম সেটাই আমাকে বাঁচিয়ে রেখেছে। ওটা ছাড়া আমি আর একটাও ছবি করিনি। আমার শেষ ছবি ছিল বিক্রম বেধা। তাই সর্বক্ষণ একটা ভয় জড়িয়ে রয়েছে।”

মাধবন জানান, করোনার আগেও দু বছর কোনো রোজগার তিনি করতে পারেননি, কারণ রকেট্রি ছবিটি নিয়েই ব‍্যস্ত ছিলেন। ছবিতে ক‍্যামিও চরিত্রে দেখা যাবে শাহরুখ খান এবং সুরিয়াকে। হিন্দি, তামিল ও ইংরেজি ভাষায় শুটিং করা হয়েছে ছবিটির। এছাড়াও তেলুগু, মালয়ালম ও কন্নড় ভাষাতেও মুক্তি পাবে রকেট্রি: দ‍্য নাম্বি এফেক্ট।

Related Articles

Back to top button