টাইমলাইনবিনোদন

প্রাক্তন স্বামীর নামে মিথ‍্যে অভিযোগ ‘দিদি নাম্বার ওয়ান’এ! বিতর্কের মুখে পড়ে জবাব রচনার

বাংলাহান্ট ডেস্ক: ঘরের কাজে নিপুণা গৃহবধূ হোক বা পেশাদার মহিলা সবার প্রতিভা প্রকাশের মঞ্চ হল ‘দিদি নাম্বার ওয়ান’ (Didi Number One)। সিজনের পর সিজন ধরে জি বাংলার এই শো মনোরঞ্জন করে আসছে দর্শকদের। সেই সঙ্গে তুলে ধরছে বহু অত‍্যাচারিত, বঞ্চিত মহিলার সংগ্রামের কাহিনি। দিদি নাম্বার ওয়ানের মঞ্চে এসে অনেক মহিলাই ব‍্যক্তিগত জীবনে না পাওয়া গুলো প্রকাশ করেন। অনেকে অত‍্যাচারিত হওয়ার ভয়াবহ কাহিনিও তুলে ধরেন।

সেই সমস্ত কাহিনি নাকি মিথ‍্যে। টিআরপি তোলার জন‍্য প্রতিযোগীদের দিয়ে মিথ‍্যে বলানো হয়। সম্প্রতি এমনি চাঞ্চল‍্যকর এক দাবি করলেন অরূপ কুমার ভুঁইয়া নামে এক ব‍্যক্তি। বেহালার বাসিন্দা ওই ব‍্যক্তির পোস্ট একটি ভিডিও আপাতত নেটপাড়ায় চর্চার বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। সেখানে দিদি নাম্বার ওয়ানের বিরুদ্ধে কিছু বিষ্ফোরক অভিযোগ এনেছেন ওই ব‍্যক্তি।


তিনি জানান, কিছুদিন আগে তাঁর প্রাক্তন স্ত্রী গিয়েছিলেন দিদি নাম্বার ওয়ানের মঞ্চে। সেখানে প্রাক্তন স্বামী অর্থাৎ ওই ব‍্যক্তির নামে বেশ কিছু বিষ্ফোরক অভিযোগ তিনি করেছিলেন। অরূপ কুমার ভুঁইয়ার দাবি, দিদি নাম্বার ওয়ানে একপক্ষের কথা শোনানো হচ্ছে। ভিডিওতে তিনি বলেন, কিছু মেয়ের জন‍্য অনেক ছেলেও আজ অত‍্যাচারিত হয়। সেই সব ছেলেদের কথা কে শুনবে?

ওই ব‍্যক্তির দাবি, স্বামী স্ত্রী দুই পক্ষকে ডেকে সামনাসামনি দাঁড় করিয়ে দুজনকেই কথা বলার সুযোগ দেওয়া হোক। পাশাপাশি দিদি নাম্বার ওয়ান এর মতো একটি শো অবিলম্বে বন্ধ করারও দাবি জানিয়েছেন ওই ব‍্যক্তি। ভিডিওটি নিয়ে বিতর্ক শুরু হতে মুখ খুলেছেন রচনা বন্দ‍্যোপাধ‍্যায়।

এক সংবাদ মাধ‍্যমের সঙ্গে সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন,  ১১ বছর ধরে চলে আসছে একটা শো। প্রত‍্যেকটি পর্বে চারটি করে মেয়ে। সবার চোখের জল তো আর মিথ‍্যে হতে পারে না? সবাই তো আর অভিনয় করে বানিয়ে বলতে পারে না? রচনার কথায়, হয়তো হাজার জন মেয়ের মধ‍্যে এক দুজন সত‍্যিটা এদিক ওদিক করে বলে। কিন্তু তাই বলে সবাই মিথ‍্যে, এমনটা হতেই পারে না।

Related Articles