টাইমলাইনভারতরাজনীতিআন্তর্জাতিক

অরুণাচল প্রদেশে চীনা অতিক্রম করা নিয়ে মোদীকে আক্রমণ রাহুলের, পাল্টা দিলেন বিজেপি সাংসদ

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ চীন প্রসঙ্গ তুলে আবারও প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে (narendra modi) আক্রমণ করলেন রাহুল গান্ধী (rahul gandhi)। কংগ্রেসের এই নেতা প্রথম থেকেই মোদী সরকাররে তুলোধোনা করে এসেছেন। এমনকি ভারত-চীন সংঘাত নিয়ে বহুবার আক্রমণও করেছেন মোদী সরকারকে। আবারও তো কোন সময় ভারতীয় সেনা অপেক্ষা চাইনিজ সেনাদের উপরও বেশি ভরসা করতেও শুরু করেছিলেন।

সম্প্রতি এক সংবাদপত্রে অরুণাচল প্রদেশের (arunachal pradesh) বেশ কিছু ছবি প্রকাশিত হয়। তার মধ্যে একটি ছবি ২০১৯ সালের ২৬ শে আগস্ট তোলা হয়েছিল এবং অন্যটি নভেম্বর মাসের তোলা। সেখানে দেখানো হয়েছে, অরুণাচলের বিতর্কিত অঞ্চলে ছোট ছোট বাড়ি বানিয়ে একটি গ্রাম তৈরি করেছে চীন। অর্থাৎ, ওই অঞ্চলটি কবজা করতে চাইছে ড্রাগন।

সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত এই ছবি নিয়েই বিতর্কের সূত্রপাত। সংবাদপত্রের ওই অংশের ছবি নিজের ট্যুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে শেয়ার করে কেন্দ্রকে আক্রমণ করে রাহুল গান্ধী লেখেন, ‘তাঁর প্রতিশ্রুতি মনে করুন- আমি দেশকে ঝুঁকতে দেব না’।নাম না করলেও বাঁকা ভাবে প্রধানমন্ত্রী মোদীকে উদ্দেশ্য করেই যে তাঁর এই ট্যুইট তা বোঝার অপেক্ষা রাখে না।

রাহুল গান্ধীর এই ট্যুইটের পাল্টা জবাব দিলেন অরুণাচল প্রদেশের বিজেপি সাংসদ তপির গাও (tapir gao)। তিনি বলেন, ‘আশির দশক অর্থাৎ রাজীব গান্ধীর আমল থেকেই চীন লংজু থেকে মাজা রোডের ওই রাস্তা বানিয়েছে। এমনকি তাওয়াংয়ের সুমদরং চু উপত্যকাও চীন দখল করে নিয়েছিল। তখন চীনের বিরুদ্ধে পাল্টা অ্যাকশন নেওয়ার জন্য তৎকালীন সেনাপ্রধান অপারেশন প্ল্যান করলেও, চীনের বিরুদ্ধাচারণ করতে চাননি রাজীব গান্ধী। অর্থাৎ ওই গ্রাম কংগ্রেসের আমলেই তৈরি হয়েছে’।

এই ঘটনার বিষয়ে বিদেশমন্ত্রকের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, দেশের নিরাপত্তার কথা মাথায় রেখে সব বিষয়ের উপরই কড়া নজরদারি রাখা হয়েছে। দেশের সার্বভৌমত্ব বজায় রাখতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

Back to top button