টাইমলাইনভারতরাজনীতি

‘মসজিদ থেকে লাউড স্পিকার না সরালে ডবল সাউন্ডে হনুমান চালিশা পড়বো’, বিস্ফোরক রাজ ঠাকরে

বাংলাহান্ট ডেস্ক : আবারও লাউড স্পিকার ইস্যুতে হুঙ্কার ছাড়লেন মহারাষ্ট্র নবনির্মাণ সেনা প্রধান রাজ ঠাকরে। রবিবার মহারাষ্ট্রের ঔরঙ্গাবাদে একটি বিশাল সমাবেশে ভাষণ দিতে গিয়ে আবারও এই প্রসঙ্গের উত্থাপন করেন এমএনএস সুপ্রিমো। এদিন মসজিদগুলিকে হুমকি দিয়ে তিনি বলেন, আগামী ৪ মের মধ্যে লাউডস্পিকারগুলি সরিয়ে না ফেললে ‘ডবল পাওয়ার’ এ হনুমান চালিসা বাজানো হবে। তাঁর এই হুমকিকে অবশ্য একবাক্যে স্বাগত জানিয়েছেন ওই সমাবেশে উপস্থিত সমর্থকেরা।

এদিন রাজ ঠাকরে বলেন, ‘ইদ ৩ মে। আমি উৎসব নষ্ট করতে চাই না। কিন্তু ৪ মের পর আমরা আর শুনব না। আমাদের দাবি না মানলে আমরা দ্বিগুণ শক্তিতে হনুমান চালিসা চালাবো। যদি আপনারা আমাদের দাবি না বোঝেন, যদি আমাদের দাবি পূরণ না হয় তাহলে আমরা আমাদের মতন সমাধানের রাস্তা বেছে নেব। ৪ মে থেকে মোটেই চুপ করে বসে থাকব না। যদি লাউডস্পিকার সরানো না হয় তাহলে আমরাও দেখাবো মহারাষ্ট্রের ক্ষমতা কতখানি।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমাদের দাবিগুলি না মিটলে সেগুলির সুরাহা না হলে মহারাষ্ট্রে যা ঘটবে তার জন্য আমরা দায়ী নই। আমি আবারও বলছি যে এটি একটি ধর্মীয় বিষয় নয়, এটি সামাজিক সমস্যা। তবে আপনারা যদি এটিকে ধর্মীয় ইস্যু করেন তাহলে আমরাও একই পদ্ধতিতে জবাব দেব।’

দেশজুড়ে চলতে থাকা লাউডস্পিকার বিতর্কের মধ্যেই ইতিমধ্যে বড় সিদ্ধান্ত নিয়েছে নাসিক প্রশাসন। এবার থেকে এই শহরে লাউড স্পিকারে ভজন বা হনুমান চালিসা বাজানোর আগে নিতে হবে অনুমতি। এই অনুমতি মসজিদে আজানের ১৫ মিনিট আগে এবং পরে দেওয়া হবে না বলেও সাফ জানিয়ে দিয়েছেন নাসিকের পুলিশ কমিশনার দীপক পাণ্ডে। শুধু তাই নয়, মসজিদের ১০০ মিটারের মধ্যে বাজানো যাবে না হনুমান চালিসা। এদিন এই প্রসঙ্গও টেনেছেন রাজ ঠাকরে।

Related Articles

Back to top button