টাইমলাইনভারতরাজনীতি

প্রতিটি মাদ্রাসার জন্য ১৫-২৫ লক্ষ টাকা খরচ করবে রাজস্থানের কংগ্রেস সরকার, বিরোধিতায় নামল বিজেপি

Bangla Hunt Desk: একদিকে কংগ্রেস (Indian National Congress) নেতা উদিত রাজ কুম্ভ মেলায় খরচ করা নিয়ে যোগী সরকারের সমালোচনা করেছেন, অন্যদিকে কংগ্রেসের এক পর্দা ফাঁস করেছে এক নিউজ চ্যানেল। জানা গিয়েছে, রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রী অশোক গহলোটের নেতৃত্বে বিরাট পরিমাণ অর্থ মাদ্রাসার উন্নতিতে ব্যবহৃত হচ্ছে।

মাদ্রার উন্নতিতে ব্যয় কংগ্রেসের
সংবাদ মাধ্যমের রিপোর্ট থেকে জানা গেছে, রাজস্থান সরকার প্রতি মাদ্রাসার উন্নতির জন্য ৯০ শতাংশ ব্যয় করবে এবং মাদ্রাসা বোর্ড ব্যয় করবে ১০ শতাংশ। প্রত্যেক মাদ্রাসার জন্য প্রায় ১৫-২৫ লক্ষ টাকা বরাদ্দ করেছে সরকার। একদিকে কংগ্রেস নেতারা যোগী সরকারকে কুম্ভ মেলায় খরচ করার জন্য সমালোচনা করছেন, অন্যদিকে তারা নিজেরাই মাদ্রাসা উন্নতি খাতে ব্যয় করছে।

২০১৯ সালের বাজেটে রাজস্থান সরকার ১১৬-এ উল্লেখ করেছিল, ‘মুখ্যমন্ত্রী মাদ্রাসা উন্নয়ন প্রকল্প’-এ প্রায় ৭ কোটি টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে। এমনকি পূর্বে মাদ্রাসা শিক্ষকদের বেতনের অর্থও বরাদ্দ করেছিল মহারাষ্ট্র সরকার।

কংগ্রেস নেতার বিতর্কিত মন্তব্য
অসমের শিক্ষামন্ত্রী হিমন্ত বিশ্ব শর্মার মাদ্রাস বন্ধের মন্তব্যে কংগ্রেস নেতা উদিত রাজ এক বিতর্কিত মন্তব্য করেছিলেন। তিনি কুম্ভ মেলাকে মাদ্রাসার সঙ্গে তুলনা করে এক ট্যুইট করে লিখেছিলেন, ‘অসম সরকার যদি সরকারি অর্থে মাদ্রাসায় কোরান পড়ানো বন্ধ করেন, তাহলে কুম্ভ মেলার জন্য ৪২০০ কোটি টাকা একদমই খরচ করা উচিত নয় উত্তপ্রদেশের সরকারের’।

উল্টো সুর গাইলেন কংগ্রেস নেতা
বৃহস্পতিবার কংগ্রেস নেতার এই ট্যুইটের জেরে রাজনৈতিক মহলে তাঁকে ঘিরে জোর সমালোচনা শুরু হয়। পরবর্তীতে বেগতিক দেখে নিজের সাফাই গেয়ে এক টিভি চ্যানেলের সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, ‘রাষ্ট্রের কোন ধর্ম হয় না। সকলের সঙ্গে সমান ব্যবহার করা উচিত। কারো সঙ্গে কোন রকম ভেদাভেদ করা উচিত নয়। তাই আমি উদাহরণ স্বরূপ কুম্ভমেলার কথা টেনেছিলাম’।

Back to top button