টাইমলাইনবিনোদন

খালি পেটে, কখনো বিস্কুট খেয়ে রাত কাটিয়েছেন! গডফাদার ছাড়াই আজ বলিউডে প্রতিষ্ঠিত রাজকুমার

বাংলাহান্ট ডেস্ক: বলিউডের তথাকথিত ‘বহিরাগত’ অভিনেতাদের মধ্যে অন্যতম রাজকুমার রাও (Rajkummar Rao)। কোনো গডফাদার ছাড়াই যিনি ইন্ডাস্ট্রির প্রথম সারিতে জায়গা করে নিয়েছেন, সম্পূর্ণ নিজের দমে। প্রমাণ করে দিয়েছেন যে অভিনেতা হওয়ার জন্য শুধুমাত্র হ্যান্ডসাম লুকস নয়, দরকার অভিনয় দক্ষতা। সেই জোরেই জাতীয় পুরস্কারও জিতে নিয়েছেন রাজকুমার।

রাজকুমার রাওয়ের আসল নাম রাজকুমার যাদব। ১৯৮৪ সালে হরিয়ানার গুরগাঁওতে জন্ম হয় তাঁর। দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়ের আত্মারাম সনাতন ধর্ম কলেজে আর্টস নিয়ে পড়ার পর ভারতীয় ফিল্ম ও টেলিভিশন সংগঠনে অভিনয় শিক্ষা নেন রাজকুমার। অভিনয়ের এতটাই শখ ছিল তাঁর যে নিয়মিত সাইকেল চালিয়ে গুরগাঁও থেকে দিল্লি আসতেন তিনি।

২০০৮ সালে অভিনেতা হওয়ার স্বপ্ন নিয়েই মুম্বই আসেন রাজকুমার। ইচ্ছা ছিল, শাহরুখ খানের মতোই বলিউডে রাজত্ব করবেন। তিনিও যে রাজকুমারের মতোই গডফাদার ছাড়াই পা রেখেছিলেন বলিউডে। শাহরুখ যদি কিং খান হয়ে উঠতে পারেন তাহলে তিনি কেন পারবেন না?

২০১০ এ মুক্তি পায় রাজকুমারের ডেবিউ ছবি ‘লভ সেক্স অউর ধোঁকা’। কিন্তু ছবিটি তেমন সাফল্য পায়নি বক্স অফিসে। তবে তাঁর দ্বিতীয় ছবি ‘কাই পো ছে’ বেশ জনপ্রিয়তা এনে দিয়েছিল অভিনেতাকে। একে একে শহিদ, কুইন, নিউটন, সিটিলাইটস এর মতো ছবি উপহার দিতে থাকেন দর্শকদের। নিউটনের জন্য এশিয়া প্যাসিফিক স্ক্রিন অ্যাওয়ার্ডও পেয়েছিলেন রাজকুমার।

নিজের স্ট্রাগলের ব্যাপারে বলতে গিয়ে অভিনেতা জানান, অনেকেই তাঁকে নায়ক হিসাবে বাতিল করে দিয়েছিলেন নানান রকম অজুহাত দিয়ে। একটা সময় এমন এসেছিল যখন খাওয়ার জন্য টাকা ছিল না তাঁর কাছে। বন্ধুবান্ধবদের থেকে খাবার নিয়ে খেতেন তিনি। কখনো শুধু বিস্কুট খেয়েও রাত কাটিয়েছেন তিনি। জীবনে অনেক কষ্টের দিন দেখার পর আজকের সাফল্যের স্বাদ চাখতে পেরেছেন রাজকুমার।

Related Articles