টাইমলাইনবিনোদন

‘লড়াইয়ের এত শখ থাকলে সীমান্তে গিয়ে লড়’, ভাইরাল ভিডিওর ‘লখনউ গার্ল’কে তুলোধনা রাখির

বাংলাহান্ট ডেস্ক: এক ক‍্যাব চালককে মারধোরের ঘটনায় রাতারাতি সংবাদ শিরোনামে উঠে এসেছিলেন লখনউয়ের এক যুবতী, প্রিয়দর্শিনী যাদব (Lucknow girl)। প্রকাশ‍্য রাস্তায় ক‍্যাব চালককে একের পর এক চড় মারতে দেখা গিয়েছিল তাঁকে। আশেপাশে লাগানো সিসিটিভি ক‍্যামেরায় রেকর্ড হয়ে যাওয়া সেই ভিডিও তুমুল ভাইরাল হয় নেটদুনিয়ায়। ‘অ্যারেস্ট লখনউ গার্ল’ হ‍্যাশট‍্যাগ ট্রেন্ড করতে থাকে টুইটারে। এরপরেই লুঠপাট, আঘাত করা এবং ভাঙচুরের অভিযোগে মামলায় দায়ের হয়েছে তাঁর বিরুদ্ধে।

এবার লখনউ গার্লের বিরুদ্ধে গিয়ে ওই ক‍্যাব চালকের সমর্থনে সুর চড়ালেন রাখি সাওয়ান্ত (rakhi sawant)। প্রিয়দর্শিনীকে সরাসরি চ‍্যালেঞ্জ করে রীতিমতো তুলোধনা করেছেন তিনি। এক ভিডিও বার্তায় রাখি বলেন, “মহিলা বলে যেকোনো সুবিধা পেয়ে যাবে! নির্দোষ মানুষদের ধরে মারবে! ওলা উবেরের চালককে ধরে মারছে। তোর ক‍্যারাটে করার এত শখ তো আমার ভাই দ‍্য গ্রেট খালির সঙ্গে এসে কর। নতুন নতুন ক‍্যারাটে শিখেছিস বলে নির্দোষ মানুষদের মারবি! আয় আমার সঙ্গে লড়, তোর পা ভেঙে দেব আমি। নির্দোষদের যে মারে তার লজ্জা হওয়া উচিত।”


রাখি আরো বলেন, “মহিলাদের জন‍্য আইন হয়েছে বলে তার এভাবে সুবিধা নেওয়া উচিত না। পুরুষ যদি কোনো দোষ না করে তবে মহিলাদের আইন নিজের হাতে তুলে নেওয়ার কোনো অধিকার নেই। আমি দেশবাসীর কাছে অনুরোধ করি যে ক‍্যাব চালককে উনি মেরেছেন তাঁকে আমরা সকলে যোগ‍্য সম্মান দিই। কাউকে প্রকাশ‍্য রাস্তায় মারার অধিকার কোনো মহিলার নেই। তোর এতই লড়াই করার শখ থাকে তো সীমান্তে গিয়ে চিনের বিরুদ্ধে লড়।”


গত ৩০ জুলাই লখনউ এর কৃষ্ণানগরের রাস্তায় এক ক‍্যাব চালককে প্রকাশ‍্যে মারধোর করতে দেখা যায় প্রিয়দর্শিনী যাদব নামে এক যুবতীকে। সাদাত আলি নামে ওই ক‍্যাব চালকের দাবি, সিগনাল সবুজ থাকা সত্ত্বেও রাস্তা পার হতে গিয়ে ওই যুবতী তাঁর গাড়ির সামনে এসে পড়েন। সঙ্গে সঙ্গে ব্রেক চাপেন সাদাত। কিন্তু যুবতী ক্ষিপ্ত হয়ে গাড়ির দরজা ধরে টানাটানি করতে থাকেন। তারপর চালককে বাইরে বের করে ২২ বার চড় মারেন তাঁকে।

মুহূর্তের মধ‍্যে ভাইরাল হয়ে যায় ভিডিওটি। ভিডিওতে দেখা যায়, পাশে পুলিস থাকা সত্ত্বেও ওই যুবতীকে থামানোর কোনো চেষ্টাই করা হয়নি। এমনকি কিছু মানুষ চালককে ছাড়াতে গেলে তাদের উপরেও চড়াও হন ওই যুবতী। ক‍্যাব চালক অভিযোগ করেন তাঁর মোবাইল ফোন ভেঙে দিয়েছেন ওই যুবতী, ক্ষতি হয়েছে গাড়িরও। এমনকি গাড়িতে রাখা ৬০০ টাকাও হাতিয়ে নিয়েছেন ওই যুবতী।

Related Articles