টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গ

২৬ জন স্বাস্থ্য কর্মীর থাকার ব্যবস্থা করল রামকৃষ্ণ মঠ ও মিশন, খুলে দেওয়া হল মঠের অতিথি শালা

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ করোনা চিকিৎসার (COVID-19) ফলে গৃহ ছাড়া চিকিৎসকদের জন্য এবার মন্দিরের দ্বার উন্মুক্ত করে দিল রামকৃষ্ণ মঠ ও মিশন (Ramakrishna Mission)। হাওড়ার টিএল জয়সওয়াল হাসপাতালের ২৬ জন স্বাস্থ্যকর্মীর থাকার ব্যবস্থা করা হয়েছে মন্দিরের অতিথি শালায়।

রাজ্যে করোনা পরিস্থিতি

রাজ্যে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা এবং মৃতের সংখ্যা দ্রুত গতিতে বৃদ্ধি পাচ্ছে। ইতিমধ্যেই আক্রান্তের সংখ্যা ১২৫৯ জন এবং মৃতের সংখ্যা ৬১ জন। চিকিৎসকদের বেশির ভাগি তাঁদের বাড়ি ফিরতে পারেছেন না সংক্রমণের ভয়ে। তাই রাত কাটাচ্ছেন হাসপাতাল সংলগ্ন কোন মাঠেই।

রামকৃষ্ণ মঠ ও মিশন চিকিৎসকদের পাশে দাঁড়াল

এবার এই গৃহহীনা চিকিৎসকদের পাশে এসে দাঁড়াল রামকৃষ্ণ মঠ ও মিশন। কয়েক সপ্তাহ আগেই জেলা প্রশাসনের তরফ থেকে হাসপাতালের চিকিৎসক এবং নার্সদের থাকার জন্য মঠের অতিথি শালা খুলে দেবার অনুরোধ করা হয়েছিল। খুব দ্রুতই মন্দির কর্তৃপক্ষ সেই আর্জি মেনে নিয়ে চিকিৎসক এবং নার্সদের জন্য খুলে দিলেন মঠের অতিথি শালা।

স্বাস্থ্য আধিকারিকের তরফ থেকে কৃতজ্ঞতা স্বীকার

চিকিৎসক এবং নার্সদের জন্য মঠের অতিথি শালা খুলে দেবার জন্য হাওড়ার মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক ভবানী দাস ধন্যবাদ জানালেন বেলুড় মঠকে। তিনি বললেন, ‘আমাদের অনুরোধ দ্রুত গ্রহণ করার জন্য বেলুড় মঠকে অসংখ্য ধন্যবাদ। এই সাহায্যের ফলে চিকিৎসকরা আরও ভাল ভাবে তাঁদের কাজ করতে পারছেন।’

অতিথিশালার দায়িত্বপ্রাপ্ত সন্ন্যাসী সুব্রতনন্দ জানিয়েছেন

সংকটের এই দিনে চিকিৎসক এবং নার্সদের পাশে দাঁড়াতে পেরে বেলুড় মঠের অতিথিশালার দায়িত্বপ্রাপ্ত সন্ন্যাসী সুব্রতনন্দ জানালেন, ‘আমাদের মন্দির কর্তৃপক্ষের তরফ থেকে জয়সওয়াল হাসপাতালের কিছু চিকিৎসক ও নার্সের এই অতিথিশালায় থাকার ব্যবস্থা হয়েছে। বহু আগে থেকেই মানবতার সেবায় রামকৃষ্ণ মিশন সব সময় এগিয়ে এসেছে। করোনা সংকটের মধ্যে জেলা প্রশাসনের কর্তাদের অনুরোধে আমরা চিকিৎসক ও নার্সদের থাকার ব্যবস্থা করেছি। বর্তমানে কাছাকাছি থাকার ফলে তাঁরা রোগীর চিকিৎসায় বেশি সময় এবং মনোযোগও দিতে পারছেন।’

Back to top button