টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গ

‘আগে আমরা চুরি করতাম, এখন রাজ্য সরকার চুরি করে’, বিস্ফোরক রেশন ডিলাররা

বাংলাহান্ট ডেস্ক : রেশন ডিলার ও খাদ্য দপ্তরের সংঘাত অব্যাহত। এবার প্রকাশ্যে এল রেশন ডিলারদের (Ration Dealer) বিস্ফোরক দাবি। ১৪ দফা দাবি দাওয়া নিয়ে ওয়েস্টবেঙ্গল এম আর ডিলার অ্যাসোসিয়েশনের সদস্যরা মঙ্গলবার ডেপুটেশন জমা দেন। শুধু তাই নয়, ডিলার অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি রাজ্য সরকারকে ‘চোর’ বলেও আখ্যা দেন। বললেন, ‘আগে আমরা চুরি করতাম, চুরির ভাগ পেত খাদ্য দফতর।’

মঙ্গলবার ওয়েস্টবেঙ্গল এমআর ডিলার অ্যাসোসিয়েশনের বনগাঁ শাখার পক্ষ থেকে বনগাঁ মহকুমা খাদ্য দফতরের আধিকারিকের কাছে ডেপুটেশন জমা দেওয়ার আগে ডিলার সংগঠনের পক্ষ থেকে মহকুমা খাদ্য দফতরের সামনে অবস্থান-বিক্ষোভ করা হয়। বিক্ষোভ সমাবেশ থেকে বনগাঁ থানা শাখার ডিলার অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি দিলীপ রায় চৌধুরী রাজ্য সরকারকে চোর বলে দাবি করলেন।

তিনি বক্তব্য রাখতে গিয়ে বলেন, ‘আগে আমরা চুরি করতাম। চুরির ভাগ দিতাম খাদ্য দফতরকে। কিন্তু এখন আর আমরা চুরি করি না। রাজ্য সরকার চুরি করে।’ এর ব্যখ্যায় তিনি বলেন, ‘রেশন কার্ড থাকা সত্ত্বেও বায়োমেট্রিকে লাল হয়ে থাকছে, তাহলে সেই খাদ্য সামগ্রী কোথায় যাচ্ছে ?’ এই রকমই একাধিক বিষয় নিয়ে রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে বিষোদগার করেন তিনি। যদিও, বিষয়টি নিয়ে মন্তব্য করতে চাননি, মহাকুমা খাদ্য দফতরের আধিকারিক অনিন্দিতা পাল।

এই বিষয়ে বনগাঁ জেলা তৃণমূল যুব কংগ্রেসের সভাপতি সন্দীপ দেবনাথ বলেন, ‘এই রাজ্য সরকারের আমলে চুরি বন্ধ হয়েছে বলেই এমআর ডিলাররা রাজ্য সরকারকে চোর বলছে। সাধারণ মানুষ রেশন পাচ্ছেন। রেশন ডিলাররা আগের মত চুরি করতে পারছে না বলেই এমন বলছেন।’ যদিও, বনগাঁ জেলা বিজেপি সাধারণ সম্পাদক দেবদাস মণ্ডল বলেছেন, ‘আমরা তো অনেক আগে থেকেই বলেছি এটা চোরেদের সরকার। আলিবাবা চল্লিশ চোরের সরকার তৃণমূল কংগ্রেস। এমআর ডিলাররা রাজ্য সরকারের অঙ্গ। এখন তাঁরাই বলছে রাজ্য সরকার চুরি করছে।’

Related Articles

Back to top button