টাইমলাইনখেলাক্রিকেট

“ধাওয়ান আর লক্ষ্মণকে এবার বড় সিদ্ধান্ত নিতে হবে”, মন্তব্য রবি শাস্ত্রীর

বাংলা হান্ট নিউজ ডেস্ক: ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে হারের পর থেকেই এই সমালোচনাটা হয়ে আসছিল, নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে ওডিআই সিরিজের প্রথম ম্যাচ হারামাত্র তা আরও বেড়ে যায়। ভারতীয় দল সীমিত ওভারের পদ্ধতিতে এমন মনোভাব ও পদ্ধতিতে খেলছে যা বর্তমান যুগে অচল, এই ধারণা এখন ক্রিকেটপ্রেমীদের মনে বদ্ধমূল হয়ে গিয়েছে।

ভারতের নিউজিল্যান্ডের কাছে হারের পর প্রাক্তন ইংল্যান্ড অধিনায়ক মাইকেল ভনও ঠিক একইরকম ধারণা পোষণ করেছেন। ওয়াসিম জাফরের টুইটের উত্তরে ভন সরাসরি জানিয়েছেন যে ভারত অচল পদ্ধতিতে সীমিত ওভারের ক্রিকেটে মাঠে নামছে। এর আগেও ইংল্যান্ড টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ জয়ের পর তিনি ভারতীয় দলকে অহংকার ছেড়ে ইংল্যান্ডের কাছ থেকে বর্তমানে সীমিত ওভারের ক্রিকেটের প্রতি কেমন মনোভাব নিয়ে এগুলো উচিত সেটা শিখতে বলেছিলেন ভারতকে।

এবার অনেকটা ভনের সুরেই ভারতীয় দলকে সতর্কতা মূলক বার্তা শোনালেন ভারতের জাতীয় দলের প্রাক্তন কোচ রবি শাস্ত্রী। তার মতে এবার ভারতীয় দলের কোচ লক্ষ্মণ এবং অধিনায়ক শিখর ধাওয়ানকে একটু নতুন করে ভাবতেই হবে। যে অনায়াস ভঙ্গিতে উইলিয়ামসান এবং ল্যাথাম ভারতীয় বোলারদের সামলেছেন তারপর আর পাঁচ বোলিং অপশন নিয়ে মাঠে নামাটা। বোকামির কাজ হবে বলে মনে করছেন শাস্ত্রী।

শাস্ত্রী বলেছেন, ‘খেলাটা শেষ হয়ে গিয়েছে, তো ওই হার নিয়ে আর ভেবে লাভ নেই। কিন্তু কাদের এই দলে বাদ দিয়ে কাকে জায়গা দেওয়া হবে সেই বিষয়ে অধিনায়ককেই সিদ্ধান্ত নিতে হবে। আমার মনে হয় এইমুহূর্তে ভারতীয় স্কোয়াডে এমন অলরাউন্ডার রয়েছেন যারা একাদশে আসলে দলের ব্যাটিং এবং বোলিং দুই ক্ষেত্রেই গভীরতা বাড়বে।’

রবি শাস্ত্রীর কথা বিশ্লেষণ করলে দেখা যাবে ভারতীয় দলে এইমুহূর্তে এমন দুইজন ক্রিকেটার রয়েছেন যারা প্রথম ম্যাচে সুযোগ পাননি কিন্তু দ্বিতীয় ম্যাচে সুযোগ পেলে ব্যাটিং এবং বোলিং দুই দিক দিয়েই ভারতকে সাহায্য করার চেষ্টা করতে পারেন। এই দুই ক্রিকেটার হলেন দীপক হুডা এবং দীপক চাহার। এবার ভারতীয় দল অতিরিক্ত বলার হিসেবে পেসার নাকি স্পিনার, কোন বিকল্প চায় তার ওপর নির্ভর করে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নিতে হবে।

Related Articles