টাইমলাইনফুটবলআন্তর্জাতিক

৩৬ মিনিট দেরিতে খেলা শুরু, লিভারপুল-রিয়াল মাদ্রিদের ফাইনাল ম্যাচে ঘটে গেল অবিশ্বাস্য ঘটনা

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ গতকাল গভীর রাতে গোটা বিশ্বের নজর ছিল চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ফাইনালের দিকে, যেখানে পরস্পরের মুখোমুখি হয় লিভারপুল এবং রিয়াল মাদ্রিদ। বিশ্বের সেরা ক্লাবের শিরোপা কোন দলটি ছিনিয়ে নেবে, তা দেখার জন্য অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করেছিল সকল ফুটবলপ্রেমীরা আর শেষ পর্যন্ত এই ম্যাচে লিভারপুলকে 1-0 ব্যবধানে হারিয়ে খেতাব জয় করে নেয় রিয়াল মাদ্রিদ। তবে তাদের এই জয়কেও ছাপিয়ে যায় ম্যাচ শুরুর আগে ঘটা এক অদ্ভুত কাণ্ড!

গতকাল ফাইনাল ম্যাচটি শুরু হয় প্রায় 36 মিনিট দেরিতে। আসলে ম্যাচ শুরু হওয়ার পূর্বে লিভারপুল সমর্থকদের মাঠে ঢোকার সময়ই ঘটে যায় বিপত্তি! এমনকি পরিস্থিতি এতটাই উত্তপ্ত হয়ে ওঠে যে, সেখানে পুলিশকে কাঁদানে গ্যাস পর্যন্ত ব্যবহার করতে হয়। তবে শেষ পর্যন্ত এই সকল বাধাকে অতিক্রম করে রেকর্ড 14তম খেতাব নিজেদের দখলে করে নেয় স্প্যানিশ ক্লাবটি। পুরো ম্যাচে লিভারপুল তাদের দাপট দেখালেও শেষ পর্যন্ত ভিনিসিয়াস জুনিয়রের একমাত্র গোল এবং রিয়াল মাদ্রিদ গোলকিপার কুর্তোয়ার অসামান্য কিপিং দক্ষতায় জিতেই মাঠ ছাড়ে কার্ল আনসেলোত্তির ছেলেরা।

উল্লেখ্য, অতীতে একাধিকবার উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগে নিজেদের দাপট দেখিয়ে এসেছে রিয়াল। 1956 থেকে 1960 পর্যন্ত নিজেদের জয়ের ধারা অব্যাহত রাখে স্প্যানিশ ক্লাবটি এবং 1998, 2000, 2002, 2014, 2016 এবং শেষবার 2018 সালে এই শিরোপা জেতার পর গতকাল দীর্ঘ চার বছর পেরিয়ে পুনরায় একবার বিশ্বের সেরা ক্লাব হিসেবে নিজেদের নাম প্রতিষ্ঠিত করল রিয়াল। স্প্যানিশ ক্লাবের ইতিহাস সৃষ্টি করার দিনে এদিন অনন্য এক নজির গড়লেন রিয়াল কোচ আনসেলোত্তি। রেকর্ড চারটি চ্যাম্পিয়ন্স লিগ খেতাব জেতার রেকর্ড গড়লেন তিনি।

ম্যাচের খুঁটিনাটি পর্যবেক্ষণ
গতকাল ম্যাচের শুরু থেকেই দাপট দেখাতে শুরু করে দুই দল। তবে 10 মিনিটের পর থেকে ক্রমশ রিয়ালের ওপর চাপ বজায় রেখে চলে লিভারপুল। বিপক্ষের বক্সে একের পর এক আক্রমণ চালাতে থাকে তারা; তবে ম্যাচে রিয়ালের ত্রাতা হয়ে ওঠেন গোলরক্ষক কুর্তোয়া। একক দক্ষতায় একের পর এক বল গ্লাভসের মাধ্যমে সেভ করেন তিনি।

ম্যাচের ঠিক 16 মিনিটের মাথায় একটি দুর্দান্ত সুযোগ পেয়ে গেলেও সেটিকে হাতছাড়া করেন মোহাম্মদ সালাহ। এরপরও একের পর এক সুযোগ পেলেও হার মানাতে পারেনি রিয়াল গোলরক্ষককে। পরবর্তীতে, ধীরে ধীরে আক্রমণের ঝাঁঝ বাড়াতে থাকে লিভারপুল; তবে ট্রেন্ট এবং আলেকজান্ডার-আর্নল্ডর শট অল্পের জন্য লক্ষ্যভ্রষ্ট হয় এবং এর কিছু মুহূর্ত পরে সাদিও মানের একটি শট পোস্টে বাধা লেগেও ফিরে আসে।

বিপক্ষের একের পর এক আক্রমণ মাঝেই স্রোতের উল্টো দিকে গিয়ে পাল্টা আক্রমণ করে বসে রিয়াল এবং দ্বিতীয়ার্ধের 59 মিনিটের মাথায় লিভারপুল জালে বল জড়িয়ে দেন ভিনিসিয়াস জুনিয়র। এরপর আরো বেশ কয়েকটি সুযোগ পেলেও সেগুলিকে কাজে লাগাতে ব্যর্থ হয় লিভারপুল এবং ম্যাচের শেষ বাঁশি বাজার সাথে সাথেই নিজেদের 14তম খেতাব জিতে নেয় রিয়াল মাদ্রিদ।

Related Articles

Back to top button