টাইমলাইন

Red, Green ও Orange Zone এ কি কি খোলা থাকবে, জেনেনিন এক পলকে !

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রালয় লকডাউনের সময়সীমা আবারও বাড়িয়ে দিলো। ৪ঠা মে থেকে লকডাউনের তৃতীয় পর্যায় শুরু হছে আর ১৭ই মে পর্যন্ত চলবে। এবার লকডাউন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর তরফ থেকে জারি করা হয়নি। এবার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রালয় বিস্তৃত গাইডলাইন্স জারি করেছে। আসুন জেনে নিই তৃতীয় দফার লকডাউনে কিসে ছাড় পাওয়া যাবে আর কি বন্ধ থাকবে …

লকডাউনের তৃতীয় দফায় যেই যেই ছাড় গুলো পাওয়া যাবে।  (Red Zone, Greed Zone, Orange Zone Relaxation )

  • রেড জোনে কোন প্রকারের কোন গতিবিধি চলবে না।
  • গ্রিন জোনে অর্ধেক প্যাসেঞ্জার নিয়ে বাস চলতে পারে।
  • রেড জোনে প্রয়োজনীয় সামগ্রীর অনলাইন ডেলিভারি হবে।
  • মনরেগা’র কাজে অনুমতি দেওয়া হয়েছে।
  • গ্রিন জোনে মদ আর পানের দোকান খোলা থাকতে পারে।
  • ওই দোকান গুলোতে দুই গজের দূরত্ব থাকবে, একসাথে পাঁচ জনের বেশি দোকানে থাকতে পারবেন না।
  • অরেঞ্জ জোনে জেলার ভিতরে জরুরী কাজের জন্য গাড়ির যাতায়াতে অনুমতি।
  • অরেঞ্জ জোনে ট্যাক্সিতে ড্রাইভার ছাড়া দুজনের বসার অনুমতি।
  • শহুরে এলাকায় শিল্প খোলার শর্তসাপেক্ষ অনুমতি।
  • জরুরী বস্তু গুলো ম্যানুফ্যাকচারিংয়ে অনুমতি।
  • নবায়নযোগ্য শক্তি যেমন সোলার পাওয়ার, উইন্ড পাওয়ার নির্মাণের অনুমতি।
  • রেড জোনে ৩৩ শতাংশ কর্মীর সাথে নিজস্ব দফতর খুলতে পারবেন।
  • গ্রামীণ এলাকার রেড জোনে নির্মাণ কাজে অনুমতি।
  • গ্রামীণ এলাকায় সমস্ত দোকান খোলার অনুমতি।
  • কৃষি সম্বন্ধিত কাজের অনুমতি।
  • স্বাস্থ পরিষেবা চালু থাকবে।
  • ব্যাংক, এনবিএসসি, ইনস্যুরেন্স কোম্পানি খোলার অনুমতি।
  • ডাকঘরের কাজে অনুমতি।
  • রেড জোনে নিজস্ব দফতর খোলার অনুমতি।

তৃতীয় দফায় কি কি বন্ধ থাকবে? 

  • সমস্ত জোনেই স্কুল, কলেজ বন্ধ থাকবে।
  • প্রতিটি জোনে সন্ধ্যে সাতটা থেকে সকাল সাতটা পর্যন্ত অপ্রয়োজনীয় কাজে যাতায়াত বন্ধ।
  • বিমান, সড়ক, ট্রেন আর মেট্রো সফর বন্ধ।
  • সাইকেল, রিকশা, অটো রিকশা বন্ধ।
  • ট্যাক্সি, আর ক্যাবও চলবে না।
  • সেলুন, বিউটি পার্লার বন্ধ।
  • হোটেল রেস্তোরাঁ বন্ধ।
  • সিনেমা হল, শপিং মল, জিম, স্পোর্টস ক্লাব বন্ধ।
  • সমস্ত ধার্মিক, সামাজিক, সংস্কৃতি কার্যক্রম বন্ধ।
  • ৬৫ বছরের বেশি বয়সী মানুষ আর ১০ বছরের কম বাচ্চাদের বাড়িতে থাকার পরামর্শ।
  • জোনে বর্ধিত মামলা দেখে রাজ্য সরকার কড়া ব্যবস্থা নিতে পারে।
Back to top button